বুন্দেলখণ্ডে জল পাঠানো নিয়ে কেন্দ্র-রাজ্য রাজনীতির যুদ্ধ

0
54

খবর অনলাইন: বুন্দেলখণ্ড যখন চরম জলসংকটে ভুগছে তখন জল নিয়ে রাজনীতিতে মেতেছে কেন্দ্র ও রাজ্য সরকার। কী ভাবে এই সংকট মেটানো যায়, তা নিয়ে আকছাআকছি করছে দু’ পক্ষ। এক দিকে কেন্দ্র যখন বুন্দেলখণ্ডে জল পাঠানোর জন্য ১০টি ওয়াগন-সহ জলের মালগাড়ি ব্যবস্থা করেছে, তখন উত্তরপ্রদেশ সরকার বলছে, জলের মালগাড়ির দরকার নেই, কারণ বুন্দেলখণ্ডের অবস্থা মহারাষ্ট্রের লাতুরের মতো নয়। তবে জলের মালগাড়ির বদলে ১০ হাজার রোড-ট্যাংকারের ব্যবস্থা করে দিতে কেন্দ্রকে অনুরোধ করেছে রাজ্য।

উত্তরপূর্ব রেলের (এনসিআর) মুখ্য জনসংযোগ অফিসার বিজয় কুমার জানান, গত বুধবার রতলাম ওয়ার্কশপ থেকে ১০টি খালি ওয়াগন ঝাঁসি এসে পৌঁছয়। এর সঙ্গে আরও ১০টি ওয়াগন জোড়ার অপেক্ষায় ওই মালগাড়ি ঝাঁসির স্টেশন ইয়ার্ডে দাঁড়িয়ে রয়েছে। ওই ২০টি ওয়াগনে জল ভরা নিয়ে মাহোবা ও ঝাঁসির জেলাশাসকদের সঙ্গে কথা হয়েছে বলে কুমার জানান। তিনি বলেন, “তবে দুই জেলাশাসকই লিখিত ভাবে জানিয়েছেন রেল ওয়াগনে জল সরবরাহ করার কোনও প্রয়োজন নেই। তাঁরা তাঁদের রোড-ট্যাংকার দিয়ে দুর্দশাগ্রস্ত এলাকায় জল সরবরাহ করছেন।” এখনও পর্যন্ত খালি ওয়াগনে জল ভরার কোনও ব্যবস্থা রেল করেনি বলে জানান কুমার। তিনি বলেন, “যখনই প্রয়োজন পড়বে, জল ভরার সুবিধা আছে এমন কোনও কাছাকাছি জায়গায় ওয়াগনগুলো পাঠানো হবে।”

সমাজবাদী পার্টির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয়েছে, অখিলেশ যাদব সরকারের কৃতিত্ব কেড়ে নেওয়ার জন্য স্থানীয় বিজেপি নেতারা কেন্দ্রকে জলের মালগাড়ি পাঠাতে বলেছিল। জলাশয়গুলিতে জল আছে। সমস্যা হল সেখান থেকে জল দূরের জায়গায় পাঠানো। এর জন্য রোড-ট্যাংকার চাই। তার জায়গায় জলের মালগাড়ি পাঠিয়ে নাটক করছে কেন্দ্র।

বিজ্ঞাপন

বুন্দেলখণ্ডের জলসংকট নিয়ে আগামী ৭ মে দিল্লিতে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে কথা হবে অখিলেশের।

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here