কেরলে বাম, তামিলনাড়ুতে এডিএমকে, অসমে বিজেপি

0
90

খবর অনলাইন: সেই ট্র্যাডিশন সমানে চলেছে। প্রতি পাঁচ বছর অন্তর সরকার পালটে দেওয়ার ট্র্যাডিশন এ বারও বজায় রাখল কেরল। সেখানে কংগ্রেসের নেতৃত্বাধীন ইউডিএফ-কে ক্ষমতা থেকে সরিয়ে ফিরে এল সিপিএমের নেতৃত্বাধীন এল ডি এফ। তবে তামিলনাড়ু এই ট্র্যাডিশনের শরিক হরেও এ বার তারা ভেঙে ফেলল ২৭ বছরের ইতিহাস। ক্ষমতায় থেকে গেল জয়ললিতার এডিএমকে। আর কেন্দ্রের শাসকদল বিজেপি-র পক্ষে সুখবর, তারা অসমের ক্ষমতা থেকে সরিয়ে দিল কংগ্রেসকে।

১৪০ আসনের কেরল বিধানসভায় ৮৯টি আসন দখল করে ক্ষমতা দখল করল বাম গণতান্ত্রিক মোর্চা (এলডিএফ)। ভি এস অচ্যুতানন্দের সিপিএম ৫৯টি আসন জিতে একক সংখ্যাগরিষ্ঠ দল। মুখ্যমন্ত্রী ওমেন চান্ডির সংযুক্ত গণতান্ত্রিক মোর্চা (ইউডিএফ) পেয়েছে ৫০টি আসন।

এ বার আশঙ্কা ছিল জয়ললিতা ক্ষমতা ধরে রাখতে পারবেন কিনা। গত পাঁচ বছরে যে ভাবে তিনি দুর্নীতির অভিযোগে নাকানিচোবানি খেয়েছেন তাতে বিরোধী ডিএমকে-র আশা ছিল, তারা এ বার ক্ষমতায় ফিরবে। কিন্তু ফল প্রকাশের পর দেখা গেল। তামিলনাড়ুর মানুষ জয়ললিতার ব্যক্তিগত দুর্নীতি নিয়ে আদৌ ভাবিত নয়। ২৩৪ আসনের বিধানসভায় তাঁর এডিএমকে পেয়েছে ১৩৪টি আসন। করুণানিধির ডিএমকে পেয়েছে ৮৯টি আসন

বিজ্ঞাপন

অসমের ক্ষমতা থেকে অবশেষে সরে যেতে হচ্ছে কংগ্রেসকে। তরুণ গগৈ ক্ষমতাচ্যুত হলেন বিজেপি জোটের কাছে। ১২৬ আসনবিশিষ্ট বিধানসভায় বিজেপি জোটের দখলে গেল ৮৬টি আসন। কংগ্রেস পেয়েছে মাত্র ২৬টি।

৩০ আসনের বিধানসভায় কংগ্রেস ১৫টি আসন দখল করে একক সংখ্যাগরিষ্ঠ দল হয়েছে। এডিএমকে ৪টি, ডিএমকে ২টি, অল ইন্ডিয়া এনআর কংগ্রেস ৮টি এবং নির্দল পেয়েছে ১টি আসন।

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here