৯৪-এ মৃণাল সেন, অনেক শুভেচ্ছা

0
65

খবর অনলাইন: চলচ্চিত্র পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায় তাঁকে ভারতীয় সিনেমার ‘বৈজু বাওরা’ নামে অভিহিত করেছেন। টলিউডের নায়ক প্রসেনজিৎ তাঁকে অনুপ্রেরণা বলেছেন।

শনিবার বিশ্ববিখ্যাত পরিচালক মৃণাল সেন ৯৪-এ পড়লেন। এই উপলক্ষে চলচ্চিত্র নির্মাতা, অভিনেতা এবং বন্ধু-স্বজন তাঁকে শুভেচ্ছা জানান। ১৮ বার জাতীয় পুরস্কার জয়ী পরিচালকের সঙ্গে মধ্যযুগের ধ্রুপদশিল্পী ‘বৈজু বাওরা’র তুলনা করেছেন ‘জাতিস্মর’, ‘রাজকাহিনি’ খ্যাত পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়। তিনি টুইট করে বলেছেন, “কট্টর তানসেন-ভক্তের তরফ থেকে ভারতীয় সিনেমার অবিশ্বাস্য বৈজু বাওরাকে জন্মদিনের শুভ কামনা”।

মৃণাল সেনকে ‘জেঠু’ বলেন বাংলা সিনেমার সুপারস্টার প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। প্রসেনজিৎ বলেছেন, “মৃণালজেঠু তোমাকে জন্মদিনের শুভ কামনা। অনেক শ্রদ্ধা জানাই। তুমি আমাদের সকলের কাছে অনুপ্রেরণা।”

বিজ্ঞাপন

মৃণাল-পুত্র কুণাল কিছু দিন আগে প্রাতরাশ টেবিলে বাবা-মায়ের একটি ছবি পোস্ট করেছিলেন। তিনি ‘মৃণাল সেন: এন এরা ইন সিনেমা’ নামে একটি ফিল্মের লিঙ্ক শেয়ার করেছেন। কুণাল ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, “আজ আমার বাবার জন্মদিন। ঠিক এই সময়েই রাজদীপ পাল তাঁর উপর একটি ফিল্ম তৈরি করেছেন। সিনেমাটি আমি এখনও দেখে উঠতে পারিনি। লিঙ্কটা দিলাম।”

মৃণাল সেনের জন্ম অধুনা বাংলাদেশের ফরিদপুরে। ‘বাইশে শ্রাবণ’, ‘ভূবন সোম’, ‘ইন্টারভিউ’, ‘কলকাতা ৭১’, ‘পদাতিক’, ‘ইন্টারভিউ’, ‘ওকা উরি কথা’ (তেলুগু), ‘এক দিন প্রতিদিন’, ‘আকালের সন্ধানে’, ‘খারিজ’, ‘মৃগয়া’, ‘এক দিন অচানক’, ‘খণ্ডহর’ প্রভৃতি চলচ্চিত্রের স্রষ্টা মৃণাল সেন ১৯৮১ সালে ‘পদ্মভূষণ’ সম্মানে এবং ২০০৫ সালে ‘দাদাসাহেব ফালকে’ সম্মানে ভূষিত হন। ফরাসি সরকার তাঁকে সে দেশের সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মান ‘কমান্ডার অফ দ্য অর্ডার অফ আর্টস অ্যান্ড লেটারস’ দিয়ে সম্মানিত করেন।

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here