কালবৈশাখীর তাণ্ডব শহরে, ভাঙল গাছ, বিপর্যস্ত ট্রেন চলাচল

0
110

খবর অনলাইন: গত কয়েক দিন ধরেই সন্ধের পরে ঝড়ের পরিস্থিতি তৈরি হলেও শুধুমাত্র ঝড়ো হাওয়াতেই সন্তুষ্ট থাকতে হচ্ছিল। আজ শুক্রবার শহরবাসীর আকাঙ্ক্ষা পূর্ণ করলেন বরুণদেব। ধেয়ে এল ঝড়, সঙ্গে নিয়ে স্বস্তির বৃষ্টি। যদিও এই ঝড়ের প্রভাবে শহরে কিছু ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

এ দিন বিকেলেই রেডার চিত্র দেখে আলিপুর আবহাওয়া দফতর বুঝে যায় আসতে চলেছে কালবৈশাখী। অন্য দিনের মতো শুধু পশ্চিমের জেলাগুলি নয়, আজ ঝড়-বৃষ্টির দাপট থেকে বাদ পড়বে না কলকাতা আর তার পার্শ্ববর্তী এলাকাও। রাত পৌনে ন’টায় আছড়ে পড়ল ঝড়। সেই সঙ্গে নামল তুমুল বৃষ্টি। এই মাসে এখনও পর্যন্ত দু’দিন বৃষ্টি হয়েছে শহরে, কিন্তু মন ভেজেনি। আজকের বৃষ্টি মানুষের সব ক্ষোভ ভুলিয়ে দিয়েছে। তবে ঝড়ের দাপটে কলকাতায় সাতটি জায়গায় গাছ পড়ার খবর পাওয়া গেছে। সব জায়গায়তেই যুদ্ধকালীন তৎপরতায় ভাঙা গাছ সরাতে নেমে পড়েছেন পুরসভার উদ্যানবিভাগের কর্মীরা। মানিকতলায় পুরনো বাড়ির একাংশ ভেঙে পড়ার খবর পাওয়া যাচ্ছে। ঝড়ের প্রভাব পড়েছে ট্রেন চলাচলেও। বিরাটির কাছে ওভারহেড তার ছিঁড়ে ব্যাহত হয়েছে শিয়ালদহ-বনগাঁ শাখায় ট্রেন চলাচল। শিয়ালদহ দক্ষিণ শাখাতেও ওভারহেড তার ছিঁড়ে ট্রেন চলাচল ব্যাহত।

এই স্বস্তি শুধুমাত্র আজ রাতটার জন্যই। কাল থেকে আবার ঘর্মাক্ত অস্বস্তিকর গরম ফিরে আসবে। তবে আগামী বৃহস্পতিবার থেকে আবহাওয়ায় পরিবর্তন আসতে পারে। এই মুহূর্তে দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে শ্রীলঙ্কা উপকূলের কাছে একটি নিম্নচাপ অবস্থান করছে। নিম্নচাপটি তামিলনাড়ূ উপকূল দিয়ে প্রবেশ করলেও অন্ধ্র, তেলঙ্গানা হয়ে আগামী সপ্তাহের শেষে ওড়িশা উপকূলের কাছে চলে আসতে পারে। এর প্রভাবে আগামী সপ্তাহের শুক্র আর শনিবার এ রাজ্যে বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। বিদেশি ওয়েবসাইট, অ্যাকুওয়েদার আর বিবিসিও ওই দিনগুলোয় হাল্কা বৃষ্টির পূর্বাভাস দিচ্ছে। এই নিম্নচাপটির হাত ধরেই আগামী তিন-চার দিনের মধ্যেই আন্দামান দীপপুঞ্জে প্রবেশ করবে দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ু।

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here