বস্তার ও রাষ্ট্রযন্ত্র / ২

0
156

sayantani-adhikariসায়ন্তনী অধিকারী:

বস্তার নিয়ে কথা বলতে গেলে একটি নাম বারবার মনে পড়ে, সে নাম সোনি সোরির। বস্তারের এক গ্রামের আদিবাসী মহিলা সোনির নাম একই সঙ্গে রাষ্ট্রীয় শোষণ ও প্রতিবাদের প্রতীক হিসাবে উচ্চারিত হয়। মাওবাদী অধ্যুষিত অঞ্চলের একটি ইস্কুলে চাকুরিরতা এই আদিবাসী মহিলাকে ২০১১ সালে মাওবাদী ও গ্রামবাসীদের মধ্যে যোগসূত্র রক্ষা করার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়। এর পরেই শুরু হয় অকথ্য নির্যাতনের ভয়াবহ কাহিনি। পুলিস সুপারিন্টেন্ডেন্ট অঙ্কিত গর্গের নেতৃত্বে যৌন অত্যাচার করা হয় এই নারীর উপর, তাঁর যোনিতে ঢুকিয়ে দেওয়া হয় পাথরের টুকরো। প্রাথমিক ভাবে ভয় এবং লজ্জায় মুখ বন্ধ করে রাখলেও পরবর্তীকালে সোনি একটি চিঠি লেখেন দিল্লির এক মানবাধিকার কর্মীকে এবং সেই থেকে শুরু হয় তাঁর প্রতিরোধের কাহিনি। তিনি জেলে শুরু করেন অনশন। এই একই সময় তাঁর স্বামীও জেলে আটক ছিলেন। কিন্তু সোনির অত্যাচারের খবর পেয়ে তিনি তাঁর পাশে দাঁড়াননি।

আরও পড়ুন : বস্তার ও রাষ্ট্রযন্ত্র / ১

পরবর্তীকালে তাঁর বিরুদ্ধে আনা ৮টি অভিযোগের মধ্যে ৭টি থেকে মুক্ত হন সোরি এবং আরেকটির জন্য তিনি জামিন পান ২০১৪ সালে। উল্লেখযোগ্য যে, তাঁর উপর হওয়া অত্যাচারে প্রধান অভিযুক্ত অঙ্কিত গর্গ এখনও কোনো ধরনের শাস্তি পাননি। বরং ভারত রাষ্ট্রের সরকারি সম্মান পেয়েছেন। ছাড়া পাওয়ার পরও সোরি বস্তারের আদিবাসীদের উপর চলতে থাকা বিভিন্ন অত্যাচারের বিরুদ্ধে তাঁর প্রতিবাদ চালিয়ে যান। তিনি আপ দলের হয়ে বস্তারে নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। যদিও নির্বাচনে তিনি পরাজিত হন, তবুও আদিবাসীদের জন্য তাঁর কাজ যে তাঁর বিরুদ্ধপক্ষের কাছে অস্বস্তিকর হয়ে উঠেছে তা বোঝা যায় যখন ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে তাঁর উপর একটি আক্রমণ হয়। সে দিন গ্রামে ফেরার পথে কয়েক জন অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তি তাঁর উপর একটি রাসায়নিক দ্রব্য নিক্ষেপ করে, যার ফলস্বরূপ সোরির মুখ বেশ কিছু দিনের জন্য বিকৃত হয়ে যায়। পরে সাক্ষাৎকারে সোরি বলেন যে, তাঁর মুখ অত্যাচারিত বস্তারের মুখ হয়ে উঠেছে, তাই তাঁর উপর এই ধরনের আক্রমণ হয়। এই ঘটনার সূত্র ধরে ছত্তীসগঢ়ের মুখ্যমন্ত্রী রমন সিংহ তাঁকে সরকারি সুরক্ষা দেওয়ার প্রস্তাব দেন। প্রথমে এই প্রস্তাবে সম্মত না হলেও, পরবর্তীকালে সোরি এই সুরক্ষা নিতে স্বীকৃত হন। কারণ, তাঁর সুরক্ষা নিতে অস্বীকার রাষ্ট্রকে এ কথা বলার সুযোগ দিচ্ছিল যে, তিনি মাওবাদীদের সঙ্গে যোগাযোগ বিঘ্নিত হওয়ার আশঙ্কায় রাষ্ট্রীয় সুরক্ষা নিচ্ছেন না।

সোরি জানিয়েছেন, তাঁর নিরাপত্তাকর্মীরা তাঁর ও তাঁর লড়াইয়ের প্রতি সহানুভূতিশীল। একই সঙ্গে সোরি এ-ও জানান যে, বস্তার বা সংলগ্ন স্থানে তাঁর সম্মেলনে গ্রামবাসীদের আসতে বাধা দেওয়া হচ্ছে এবং বিভিন্ন ভাবে ভয় দেখানো হচ্ছে। তাঁর মতে, তাঁর ও আরও অন্য সমিতি, যারা ওই অঞ্চলের মানুষের হয়ে কথা বলার চেষ্টা করছে, তাদের বিভিন্ন অত্যাচারের সম্মুখীন হতে হচ্ছে এই কারণে যাতে তারা কোনো ভাবেই বস্তারের প্রকৃত চিত্র দেশবিদেশের মানুষের সামনে তুলে ধরতে না পারে। তবে এই লড়াইয়ে সোরি একা নন, তাঁর সঙ্গে আছে আরও কিছু নাম, যাঁরা বস্তারে প্রতিরোধ জারি রেখেছেন। বেলা ভাটিয়া তার মধ্যে একটি নাম। এই প্রতিরোধের আরও কিছু চিত্র পরবর্তী পর্বে। (ক্রমশ)

তথ্য সূত্র:

http://www.thehindu.com/news/national/other-states/Tribal-activist-Soni-Sori-back-in-full-swing-in-Bastar/article14377404.ece

http://www.business-standard.com/article/current-affairs/my-face-today-is-the-face-of-bastar-s-fight-soni-sori-116030700907_1.html

http://www.bbc.com/news/world-asia-india-35811608

(লেখক যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইতিহাসের গবেষক)

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here