ওয়েবডেস্ক: এত কিছু হবে জানলে বোধ হয় আনন্দ আহুজাকে আর বিয়ে করতেন না সোনম কাপুর। তাঁর সঙ্গে লিভ-ইন সম্পর্কেই থাকতেন বা তাও হয় তো থাকতেন না!

sonam kapoor and anand ahuja

হয়েছে কী, যতই প্রথা মেনে, গুরু গ্রন্থসাহিব-এর পবিত্র উপস্থিতিতে সাঙ্গ হোক না কেন সোনম কাপুর আর আনন্দ আহুজার আনন্দ করাজ (শিখরা বিয়েকে এই নামেই ডাকেন), শিরোমণি গুরুদ্বার প্রবন্ধক কমিটি জানাচ্ছে- ওটা আদতে বিয়েই নয়! কেন না, আনন্দ করাজ-এর সব নিয়ম পালন করা হয়নি ওই বিয়েতে। আর প্রথামাফিক বিয়েতে যদি প্রথাই মানা না হয়, তবে আর তাকে বিয়ে বলা যাবে কী করে! এই যুক্তিতেই আপাতত সরব শিখ ধর্মগুরুরা!

sonam kapoor and anand ahuja

জানা গিয়েছে, আনন্দ করাজ-এর এক গুরুত্বপূর্ণ প্রথা হচ্ছে, বরের পাগড়ি থেকে কলগি বা ব্রোচ খুলে নেওয়া। প্রধান পুরোহিতই নিয়ম মেনে সেই কাজ সাঙ্গ করে থাকেন। অন্যথায়, বর বিয়েতে বসার অধিকার পান না। কিন্তু আনন্দ আহুজার ক্ষেত্রে এই নিয়ম মানা হয়নি। আগাগোড়া পাগড়িতে হিরের কলগি পরে ঘুরে বেড়িয়েছেন তিনি। হিরের ছটার পাশাপাশি তাঁর পৌরুষকে জেল্লা দিয়েছে কলগির সফেদ পালকও।

sonam kapoor and anand ahuja

আর এই জায়গা থেকেই ক্ষোভে ফেটে পড়েছে শিরোমণি গুরুদ্বার প্রবন্ধক কমিটি। তাঁরা জানতে চাইছেন- এত বড়ো ভুল হল কী করে! যে পুরোহিত বিয়েটা দিয়েছেন, তাঁর তো নিয়ম না জানার কথা নয়। তা হলে গুরু গ্রন্থ সাহিব-এর উপস্থিতিতে নিয়ম ভঙ্গের ধৃষ্টতা তাঁর হল কী করে! আর অবৈধ এবং অসম্পূর্ণ বিয়ের পরে নবদম্পতিকে মিলনের অনুমতি তিনি দিলেনই বা কোন মুখে! ফলে কমিটি অকাল তখত-এর কাছে ওই পুরোহিতকে গোষ্ঠী থেকে বহিষ্কারের দাবি তুলেছে।

sonam kapoor and anand ahuja

যদিও সোনম আর আনন্দকে জড়িয়ে কিছু বলছে না শিরোমণি গুরুদ্বার প্রবন্ধক কমিটি। তেমনই যে পুরোহিত বিয়ে দিয়েছেন, তিনিও কিছু বলছেন না! দেখা যাক, জল কত দূর গড়ায়!

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here