জোর করে চাঁদা তোলার অভিযোগ, ভারতী ঘোষের বাড়িতে তল্লাশি সিআইডির

0
842

কলকাতা: বেআইনি ভাবে জোর করে চাঁদা আদায়ের অভিযোগে ভারতী ঘোষ এবং তাঁর ঘনিষ্ঠ সাত পুলিশ অফিসারের বাড়িতে তল্লাশি চালাল সিআইডি। শুক্রবার সকাল থেকে এই তল্লাশি চালানো হয়।

এ দিন সকাল থেকে কলকাতা এবং পশ্চিম মেদিনীপুরের বেশ কয়েকটি জায়গায় তল্লাশিতে নামে ৭৫ জনের সিআইডির একটি দল। কলকাতার নাকতলায় ভারতীর বাড়িতে তল্লাশিতে নামে দশ জনের একটি দল। এ ছাড়াও তাঁর সল্টলেক এবং পশ্চিম মেদিনীপুরের বেলদার বাড়িতেও তল্লাশি চালানো হয়।

তল্লাশি চালানো হয়েছে ভারতী ঘোষের ঘনিষ্ঠ বেলদা থানার ওসি প্রদীপ রথের বাড়িতেও। তাঁর বিরুদ্ধে হিসেববহির্ভুত সম্পত্তি রাখার অভিযোগ রয়েছে। তল্লাশি চালানোর সময়ে তাঁর বাড়ি থেকে সোনা উদ্ধার হয়েছে বলে খবর পাওয়া গিয়েছে। জেলা পুলিশ সূত্রের খবর, ভারতী-ঘনিষ্ঠ প্রদীপবাবুকে ‘ক্লোজ’ করা হয়েছে।

Bharati Ghosh

আরও পড়ুন: নিজের বিরুদ্ধে চলা ফৌজদারি মামলা থেকে বাঁচতেই কি বিজেপিতে যোগ ভারতীর?

নবান্ন সূত্রে খবর, কয়েক জন ব্যবসায়ী সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রীর কাছে অভিযোগ করেন যে একটি রাজনৈতিক দলের নাম করে তাদের থেকে বেআইনি ভাবে চাঁদা তোলা হয়েছে। চাঁদা না দিলে পুলিশের ভয়ও দেখানো হয়েছে।  রাজ্য সরকার এই নিয়ে প্রকাশ্যে কিছু না বললেও বেশ কিছু দিন ধরেই তদন্তের কাজ করছিল সিআইডি।

উল্লেখ্য, গত ২৫ ডিসেম্বর রাতে পশ্চিম মেদিনীপুরের পুলিশ সুপারের পদ থেকে আচমকাই ব্যারাকপুরে রাজ্য সশস্ত্র পুলিশের তৃতীয় ব্যাটেলিয়নের কম্যান্ডিং অফিসারের পদে বদলি করা হয়েছিল ভারতীকে। কিন্তু ভারতী সেই পদ গ্রহণ না করে সরাসরি চাকরি থেকে ইস্তফা দেন। তাঁর ইস্তফা গ্রহণ করে নেয় রাজ্য। এর পরেই ভারতীর বিজেপিতে যোগ দেওয়া নিয়ে জল্পনাও শুরু হয়ে যায়।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here