নিয়মিত চা পান করলে কমবে ডায়াবেটিস

0
554

নিছক ঘরোয়া আড্ডা থেকে বিপ্লব, বাঙালি জীবনে চা-এর গুরুত্ব অপরিসীম। শুধু বাঙালিই বা কেন, হাতে চায়ের কাপ ছাড়া সকাল শুরু হয়, এমন দেশ সারা বিশ্বে আদৌ আছে কি? এত দিন নানা গবেষণায় বারবারই উঠে এসেছে চা পানের গুণাবলি। ক্যাফেইনের প্রভাবে শরীর সতেজ রাখা থেকে শুরু করে গড় আয়ু বাড়ানো, সব রকম কৃতিত্বই জুটেছে তার ঝোলাতে। সাম্প্রতিক গবেষণা বলছে নিয়মিত চা পানের অভ্যেস কমাতে পারে ডায়াবেটিসের আশঙ্কা। 

আরও পড়ুন; ধোঁয়া ওঠা কাপের জন্যই লম্বা হতে পারে আপনার জীবন সফর, বলছে গবেষণা

চা পাতা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট হিসেবে কাজ করে। তার ফলে ক্যানসার কিংবা হৃদরোগের সম্ভাবনা নাকি বেশ খানিকটা কমে। সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা গেছে, চা পাতায় উপস্থিত থাকা পলিফেনল যৌগ শরীরের রক্ত শর্করার (ব্লাড সুগার) মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করে। পূর্ণবয়স্কের শরীরে অতিরিক্ত শর্করা কমাতে সাহায্য করে পলিফেনল। কী ভাবে? গবেষণা বলছে, রক্তের শর্করা শোষণের ক্ষমতা কমিয়ে ফেলে এই যৌগ। ‘এশিয়া প্যাসিফিক জার্নাল অব ক্লিনিকাল নিউট্রিশন’-এ প্রকাশিত হয়েছে এই সংক্রান্ত বিস্তারিত গবেষণা। গবেষকরা বলছেন, মিষ্টি জাতীয় খাবার খেলে শরীরে শর্করার পরিমাণ বেড়ে যায়। এই বেড়ে যাওয়া শর্করার মাত্রাকে প্রশমিত করে পলিফেনল। 

”সারা বিশ্বে পান করা বিভিন্ন তরলের তালিকায় জলের পরেই রয়েছে চা-এর স্থান”, জানালেন টি অ্যাডভাইজরি প্যানেল’-এর সদস্য ডঃ টিম বন্ড। ২৪ জনের ওপর পরীক্ষা করে প্রকাশিত হয়েছে গবেষণার ফলাফল। এদের মধ্যে ১২ জনের রক্ত শর্করার পরিমাণ স্বাভাবিক, বাকিদের কিছুটা বেশি। পরীক্ষার আগের সন্ধেয় এদের প্রত্যেকেই দেওয়া হয়েছিল কম মিষ্টি যুক্ত খাবার। পরের সকালে খালি পেটে রক্ত পরীক্ষা করার পর তাদের দেওয়া হয়েছিল চা (পলিফেনলের মাত্রা বাড়িয়ে অথবা কমিয়ে)। চা পানের ৩০, ৬০, ৯০ এবং ১২০ মিনিটের মাথায় চার বার ফের তাদের রক্ত পরীক্ষা করা হয়। এক সপ্তাহ অন্তর অন্তর মোট তিন বার এই পরীক্ষা করে দেখা গেল, সবার শরীরের রক্তেই সম পরিমাণ শর্করা কমেছে।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here