পয়া কান্তিরাভাতেই ভাগ্যের চাকা ঘোরাতে মরিয়া মোহনবাগান

0
156

সানি চক্রবর্তী:

৩০ মে ২০১৫। কান্তিরাভা স্টেডিয়াম। বেঙ্গাল্লুরু এফসির বিরুদ্ধে ১-১ ড্র মোহনবাগানের। অতি মূল্যবান এক পয়েন্টে তেরো বছরের খরা কাটিয়ে ভারত সেরা মোহনবাগান।

কাট টু ১১ মার্চ ২০১৬। হঠাৎ ফর্ম খুইয়ে ধুঁকতে থাকা মোহনবাগান মুখিয়ে লিগের লড়াইয়ে ঘুরে দাঁড়াতে। সামনে সেই বেঙ্গালুরু এফসি। মঞ্চ সেই কান্তিরাভা স্টেডিয়াম।

গত দু’ বছরে মোহনবাগানের প্যান ইন্ডিয়ান কম্পিটিটর বেঙ্গালুরু এফসি। বর্তমানে একদমই ছন্দে নেই তারা। ১১ ম্যাচে ১৬ পয়েন্ট পেয়ে দাঁড়িয়ে লিগের পঞ্চম স্থানে। তবে সুনীল-লিংডো-বিনীতরা তাঁদের দিনে যথেষ্ট শক্তিশালী প্রতিপক্ষ। সঞ্জয় সেনের মুখে শোনা গেল ঠিক সেই কথাই। তাঁর কথায় “বেঙ্গালুরু ছন্দে নেই এটা ঠিক, কিন্তু তারা যথেষ্ট ভালো দল, যে কোনো দলকে হারানোর ক্ষমতা রাখে।”

গত দু’ ম্যাচে পাঁচ পয়েন্ট নষ্ট করেছে মোহনবাগান। এগারো ম্যাচে ২২ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে রয়েছে। এই ম্যাচে না জিততে পারলে, লিগ পাওয়ার দৌড়ে অনেকটাই পিছিয়ে পড়বে তারা। ঘুরে দাঁড়ানোর ম্যাচ হিসেবে দেখলেও সঞ্জয় কিন্তু মরনবাঁচন ম্যাচ হিসেবে দেখছেন না। তাঁর মতে, “লিগ এখনও ওপেন।” সঞ্জয় মুখে না বললেও এই ম্যাচে তিন পয়েন্ট খুব প্রয়োজন মোহনবাগানের, কারণ এর পর তাদের বাকি থাকবে ছ’টা ম্যাচ, যেখানে বেশ কিছু কঠিন ম্যাচ রয়েছে সবুজ মেরুন শিবিরের। মোহনবাগানের ঘুরে দাঁড়ানোর এই লড়াইয়ে অনুপ্রেরণা লা লিগার দৌড় (এক সময় রেয়াল অনেকটাই এগিয়ে থাকলেও বার্সেলোনা এখন লিগ দৌড়ে ফিরে এসেছে)। তিন দিন পরেই এই কান্তিরাভাতেই বেঙ্গালুরুর বিরুদ্ধে এএফসি কাপে নামবে বাগান। তার স্টেজ রেহার্সাল হিসেবেই এই ম্যাচকে দেখছে দু’ দল।  

তবে ডিফেন্স নিয়ে কিছুটা চিন্তা রয়েছে মোহনবাগানের। সঞ্জয়ের কথায়, “গত দু’ম্যাচে বাজে গোল খেয়েছি। সেই ভুল ধরিয়ে দেওয়া হয়েছে ছেলেদের।” ডিফেন্স যাতে একই ভুল না করে সে দিকেই নজর রয়েছে। চোট আঘাতে আক্রান্ত বাগান শিবির। চোটের জন্য দলের সঙ্গে যাননি দেবজিত। চোট রয়েছে জেজের। প্রবীর দাসও অনিশ্চিত। তবে চোট সারিয়ে ফিরছেন ডাফি। বলবন্তের সঙ্গে জুটি বেঁধে শনিবার ডাফিই শুরু করবেন। তবে চোট আঘাত নিয়ে ভাবনা নেই, তিন পয়েন্টই পাখির চোখ সঞ্জয়ের।

বেঙ্গালুরু যে ফর্মে নেই সেটা মেনে নিচ্ছেন তাদের স্পানিশ কোচ আলবের্ত রোকা। তাঁর কথায়, “মোহনবাগানের কঠিন ম্যাচ, তবে আমাদের ছন্দে ফিরতে তিন পয়েন্ট দরকার। ইতিবাচক মানসিকতা নিয়ে সেই লক্ষ্যেই নামবে ছেলেরা।” নিজের দোলের ছন্দহীনতার মাঝে রেফারিং নিয়ে প্রশ্ন তুলে দিলেন বার্সেলোনার প্রাক্তন সহকারী কোচ।

গত বারও কান্তিরভায় ২-০-তে বেঙ্গালুরুকে হারিয়েছিল মোহনবাগান। সেই পয়া কান্তিরাভাতেই লিগে ঘুরে দাঁড়ানোর স্বপ্ন দেখছে বাগান শিবির।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here