পাঁচটি পদ্ধতিতে নিতে পারেন বগলের যত্ন

0
221

ওয়েবডেস্ক: আমরা নিজেদের সুন্দর রাখার জন্য অনেক কিছুই করে থাকি। চুলের যত্ন থেকে ত্বকের যত্ন, সবটাই নিয়ম মেনে করি। কিন্তু নিজের বগলের যত্ন নেওয়ার ব্যাপারটা কি নিয়মিত মেনে চলি?

তবে দিনের পর দিন যদি এইভাবে চলতে থাকে আপনি নিজেই সমস্যায় পড়বেন। ঠিক মতো বগল পরিষ্কার না করলে সেখানে ময়লা জমে নানারকম চর্ম রোগ দেখা দিতে পারে।

অনেক সময় পরিষ্কারের অভাবে আমাদের শরীরের মধ্যে থাকা মৃত কোষগুলি থেকে যাওয়ার ফলে আর নতুন কোষ জন্মাতে পারে না। সেখান থেকে ফাংগাল ইনফেক্সশান, এক্সিমা, বগলের নীচে কালো ছোপ ইত্যাদি নানারকমের রোগের সৃষ্টি হয়। খুবই কম খরচে ঘরোয়া পদ্ধতিতে আপনি এই সমস্যাগুলি থেকে মুক্তি পেতে পারেন।

চলুন জেনে নেওয়া যাক কী সেই পাঁচটি পদ্ধতি-

১। লেবুর রস

লেবুর উপকারিতার শেষ নেই। আগে হয়তো জানতেন মুখে ট্যান পড়লে লেবুর রস ব্যবহার করা যায় কিংবা চুলের খুসকি দূর করতে লেবুর রস কাজে লাগে।

তা হলে শুনুন বগলের যত্ন নিতে আপনি লেবু ব্যবহার করতে পারেন। বগলের নীচে কোনো কালো ছোপ, মৃত কোষগুলি পরিষ্কার না করলে সেখান থেকে ফাংগাল ইনফেক্সশান হয়।

কীভাবে ব্যবহার করবেন-

স্নান করতে যাওয়ার ১৫ মিনিট আগে লেবুর রসটা বগলের নীচে লাগিয়ে রাখুন। ৫-৭ মিনিট রেখে হালকা উষ্ণ জল দিয়ে ধুয়ে নিন। সপ্তাহে অন্তত ২ দিন করুন।

২। টমেটো রস

টমেটো খাওয়া যেমন ভালো আবার তেমনই রূপচর্চার কাজেও টমেটো লাগে। এ ছাড়াও বগলের পরিচর্যাতেও টমেটো কাজে লাগে।

কীভাবে ব্যবহার করবেন-

বগলের নীচে যেখানে কালো ছোপ রয়েছে সেখানে টমেটোর রস লাগান। টমেটোর রসের সঙ্গে ৪ চামচ লেবুর রস মিশিয়ে নিন। ১০ মিনিট মতো রেখে হালকা করে ম্যাসাজ করুন। তারপরে ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

৩। হলুদ

হলুদের রয়েছে প্রচুর গুণ। তা হলে জেনে নেওয়া যাক কী কী গুণ আছে। হলুদ যেমন মুখে মাখলে ত্বকের রং উজ্জ্বল করে আবার তেমনই বগলের মধ্যে কোনো কালো ছোপ, দাগ থাকলে তা তুলতেও সাহায্য করে।

কীভাবে ব্যবহার করবেন-

যদি গুঁড়ো হলুদ ব্যবহার করেন তা হলে ২ চামচ হলুদ গুঁড়োর সঙ্গে ১ চামচ লেবুর রস দিয়ে লাগাতে পারেন। অথবা কাঁচা হলুদ বাটা ব্যবহার করতে পারেন। অন্তত ১২-১৫ মিনিট রেখে ধুয়ে নিন।

৪। নারকেল ও আমন্ড তেল

যাদের খুব রুক্ষ্ম ও শুষ্ক ত্বক তাঁরা নারকেল তেলের সঙ্গে  আমন্ড তেল বাড়িতে বানিয়ে ব্যবহার করতে পারেন।

কীভাবে ব্যবহার করবেন-

২ চামচ নারকেল তেলের মধ্যে ২ চামচ আমন্ড তেল মিশিয়ে নিন। অন্তত ২০ মিনিট রাখার পর ধুয়ে ফেলুন।

৫। দুধ ও দুধের সর

দুধ খেতে হয়তো অনেকেরই ভালো লাগে না। তবে দুধের সর যেমন খেত ভালো লাগে তেমন দুধের সর মুখে মাখলে মুখের উজ্জ্বলতা বাড়ে। ত্বক নরম ও কোমল হয়। তেমনই বগলের পরিচর্যার কাজেও দুধের সর লাগে।

কীভাবে ব্যবহার করবেন-

একটি কাচের বাটির মধ্যে ৪ চামচ দুধ ও দুধের সর নিয়ে একটু ফেটিয়ে নেবেন। তারপরে ওই মিশ্রণটা বগলের যেখানে যেখানে কালো ছোপ রয়েছে অন্তত ৫-৭ মিনিট লাগিয়ে রাখুন। শুকিয়ে গেলে জল দিয়ে ধুয়ে নিন।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here