সপরিবার, সবান্ধব চলুন ‘আহারে বাহারে’-র চাঁদের হাটে

0
813

কলকাতা: আজ বাদে কাল উদ্বোধন। ইতিমধ্যেই সেজে উঠেছে ‘ওয়েস্ট উইন্ড’ আবাসনের কমিউনিটি হল। বাসিন্দারাও খুব উৎসাহিত, ‘আহারে বাহারে’-র মতো অভিনব একটি লাইফস্টাইল প্রদর্শনী নিজেদের উঠোনেই আয়োজিত হচ্ছে বলে।

কিন্তু ঠিক কী বিশেষত্ব এই প্রদর্শনীর? তা জানতেওই পৌঁছে গিয়েছিলাম আয়োজক সংস্থা আদিতি’স-এর কাছে। এক ঘরোয়া সাক্ষাৎকার এ সংস্থার কর্ণধার শ্রীমতি আদিতি চৌধুরী জানালেন, “যে হেতু এটি প্রদর্শনী, তাই আমরা একই ধরনের অনেক স্টলের দিকে নজর দিইনি। চেয়েছি বিশেষ কিছু প্রদর্শন করতে। আবার অন্য দিকে পুজোর মুখে হলেও শুধুমাত্র শাড়ি-জামাকাপড়ের দিকে নজর না দিয়ে আমরা লাইফস্টাইলের দিকে ফোকাস করেছি। কারণ দুর্গাপুজোর মতো উৎসবে শুধু নিজেদের নয়, আশেপাশের সব কিছু নিয়েই তো সেজে উঠতে মন চায়। তাই ভিন্ন ভিন্ন ধরনের জিনিস রাখার চেষ্টা করেছি।”

তা হলে ঠিক কী কী ধরনের জিনিস পাওয়া যাবে এই প্রদর্শনীতে?

বিজ্ঞাপন

এর উত্তরে আদিতি বললেন, “যেমন ধরুন সুন্দর ভাবে থাকতে গেলে বাসস্থান সুন্দর ভাবে সাজাতে হয়। সেই বাসস্থানের সৌন্দর্য বাড়াতে আর্টিস্ট অরুণা আসছেন ওঁর তেলরঙের পেন্টিং-এর সম্ভার নিয়ে।

“আবার অন্য দিকে থাকছে গয়নার বুটিক ‘সাজ’ তাঁদের ট্রাইবাল ইন্সপায়ার্ড আধুনিক গয়না নিয়ে। যেখানে আপনি গয়না কেনার পাশাপাশি নিজের পছন্দ অনুযায়ী অর্ডারও দিতে পারবেন। সেই গয়নার সঙ্গে ছন্দ মেলাতে থাকছে অসমের এরি সিল্ক, মুগা সিল্ক আর কটনের মেখলা চাদর। সুদূর অসম থেকে তাদের ট্রাইবাল কালেকশন নিয়ে হাজির ‘কহুয়া’ বুটিক।

“থাকছেন মিতুল চ্যাটার্জি তাঁর কিছু অনবদ্য বেনারসি কাতান সিল্কের পসরা নিয়ে। ঘরের এত কাছে এ জিনিস দেখার সুযোগ সহজে মেলা ভার।

“সহেলি আসছেন ওঁর পুতাতুন্ডা’স হাট নিয়ে। এই হাটে ঘর থেকে নিজেকে সাজানোর মোটামুটি সব কিছুই পেয়ে যাবেন আপনি। আরও একটু বেশি চাইলে দেখে নিন মহালাসা বুটিকের অনন্য এমব্রয়ডারি আর কাঁথা কাজের পসরা। অথবা পুজার ডিজাইনার কুর্তি আর ড্রেসের কালেকশন। তার সঙ্গে হাজির প্রসাধনীর স্টল।

“এক ছাদের তলায় এমন চাঁদের হাট-ই ‘আহারে বাহারে’-র আকর্ষণ। সঙ্গে খাবার তো আছেই।

“ভালো লাইফস্টাইলের অন্যতম প্রধান অঙ্গ ভালো খাওয়াদাওয়া। তাই আমরা চেষ্টা করছি দর্শকদের ভিন্ন ভিন্ন স্বাদের খাবার পরিবেশন করার। সুতরাং বুঝতেই পারছেন, এক্কেবারে আলাদা ধরনের কনসেপ্টেই সাজিয়েছি আমরা ‘আহারে বাহারে’-কে। এটি করতে গিয়ে হয়তো প্রদর্শনী অনেক বড় হয়নি, কিন্তু কোয়ানটিটির থেকে কোয়ালিটিই গুরুত্ব পেয়েছে আমাদের আয়োজনে। তাই আপনাদের মাধ্যমে আমরা সব্বাইকে আমন্ত্রণ জানাচ্ছি।”

পুজোর আগে এই যে জমজমাট চারটি দিনের লম্বা সপ্তাহান্ত পাওয়া গিয়েছে, তা  সুদেমূলে উসুল করতে সবাই আসুন, সপরিবার, সবান্ধব।

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here