এ বার মানসিক নির্যাতন, নয়া ভিডিও বিএসএফ জওয়ান তেজ বাহাদুরের

0
143

নয়াদিল্লি: নতুন ভিডিও নিয়ে সোশাল মিডিয়ায় হাজির বিএসএফ জওয়ান তেজ বাহাদুর।

এর আগে বাহিনীতে খাবারের খারাপ মান নিয়ে তাঁর নিজের তোলা ভিডিও সোশাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছিল। দেশের রাজনীতি ও সাধারণ মানুষের মধ্যে ঝড় তুলে দিয়েছিল সেই ভিডিও। এবার তাঁর অভিযোগ, আগের ভিডিও-র জেরে, তাঁর ওপর মানসিক অত্যাচার করা হচ্ছে বাহিনীতে। এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর হস্তক্ষেপও চেয়েছেন ওই জওয়ান।

“ভিডিওটি দিন পাঁচেক আগে থেকে হোয়াটসআপে ছড়াতে শুরু করে। তাঐরপর সোশাল মিডিয়ায় চলে আসে। ভিডিওটি ওই জওয়ানের স্ত্রী তুলেছেন। দেখে পরিষ্কার বোঝা যাচ্ছে, এটি জম্মুর গেস্ট হাউজের ছবি। দিল্লি হাইকোর্টের নির্দেশে, জওয়ানের সঙ্গে দেখা করার সুযোগ পেয়েছিলেন তাঁর স্ত্রী। ওই গেস্ট হাউজেই তাঁদের দেখা করার বন্দোবস্ত হয়েছিল। ফেব্রুয়ারির দ্বিতীয় সপ্তাহে ওদের দেখা হয়”, বলেছেন এক উচ্চপদস্থ বিএসএফ আধিকারিক। 

বিজ্ঞাপন

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক এই নতুন ভিডিও-কাণ্ডকে ‘চূড়ান্ত বিশৃঙ্খলা’ বলে চিহ্নিত করেছে।

ওই ভিডিও-য় জওয়ানের দাবি, গত ১০ জানুয়ারি তাঁর ফোন নিয়ে নেওয়া হয়েছে। তাঁর আশঙ্কা, ওই ফোনের তথ্য বিকৃত করে, তিনি পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক রাখেন, এমন প্রমাণের চেষ্টা হতে পারে। তাঁর আবেদন, “কোনো গুজবে কান দেবেন না। আমি নিজে যদি কোনো ভিডিও পোস্ট করলে, কেবল তাতেই বিশ্বাস করবেন”। তেজ বাহাদুরের দাবি, তাঁর স্বেচ্ছা অবসরের আবেদন বাতিল করে দেওয়া হয়েছে।

বিএসএফ-এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, তদন্তের জন্যই তেজ বাহাদুর যাদবের ফোনটি নিয়ে নেওয়া হয়েছে। যেহেতু তদন্ত চলছে, তাই এই মুহূর্তে তাঁকে স্বেচ্ছা অবসর দেওয়া সম্ভব নয়। তাঁকে কোনো কাজ দেওয়া হয়নি, তাঁর চলাফেরার ওপরও কোনো বিধিনিষেধ নেই।

ভিডিওটি দেখে বোঝা যাচ্ছে, সেটি কোনো পেশাদারের দ্বারা সম্পাদনা করা হয়েছে।

গত মাসে তেজ বাহাদুরের সঙ্গে দেখা করার পর, তাঁর স্ত্রী শর্মিলা দিল্লি হাইকোর্টে জানান, স্বামীর শরীরস্বাস্থ্য ও খাওয়াদাওয়া নিয়ে তিনি সন্তুষ্ট।

 

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here