রাঢ়বঙ্গে শৈত্যপ্রবাহ, সংক্রান্তিতেই শীতলতম দিন কলকাতায়

0
103

কলকাতা: প্রত্যাশামতোই ছক্কা হাঁকাল কলকাতার শীত। একেবারে ‘বাপি বাড়ি যা’ স্টাইলে। যার ধাক্কায় মরশুমে প্রথমবার বারো ডিগ্রির নীচে নামল তাপমাত্রা। পূর্বাভাস যা তাতে আগামী দু’দিনে আরও কিছুটা নামতে পারে শহরের তাপমাত্রা।

হিমালয় থেকে বয়ে আসা কনকনে উত্তুরে হাওয়া ক্রমে থাবা বসাচ্ছিল পূর্ব ভারতে। বিহার-ঝাড়খণ্ড, উত্তরবঙ্গের হয়ে শুক্রবার সেই হাওয়া বাঢ়বঙ্গে এসে পৌছয়, এর ফলে স্বাভাবিকের তিন-চার ডিগ্রি নেমে যায় বাঁকুড়া-পুরুলিয়া-বীরভূমের তাপমাত্রা। তবে শৈত্যপ্রবাহ গ্রাস করেনি সে দিন, কারণ সর্বনিম্ন তাপমাত্রা স্বাভাবিকের থেকে পাঁচ ডিগ্রি নীচে নামলেই তখন বলা হয় শৈত্যপ্রবাহ। তবে শনিবার শৈত্যপ্রবাহের কবলে পড়েছে এই সব জেলা। এ দিন আলিপুরে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ১১.৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। দমদমে এ দিন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১০.৪ ডিগ্রি।

আরও পড়ুন: সাগরমেলা নয়, প্রাকৃতিক কারণেই শীত ফিরল কলকাতায়

বিজ্ঞাপন

দক্ষিণবঙ্গে এ দিন শীতলতম জায়গা পুরুলিয়া। সেখানকার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ৬.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এর পাশাপাশি শনিবার শৈত্যপ্রবাহের কবলে ছিল শান্তিনিকেতন (৬.৪ ডিগ্রি), পানাগড় (৬.৭ ডিগ্রি)। প্রবল ঠান্ডা পড়েছে কাঁথি (৮ ডিগ্রি ), বাঁকুড়া (৮.৫ ডিগ্রি), বর্ধমানে (৮.৮ ডিগ্রি)। ৯ থেকে ১০ ডিগ্রির আশেপাশে ঘোরাফেরা করছে দিঘা, ডায়মন্ড হারবার, কৃষ্ণনগর, বহরমপুরের তাপমাত্রা।

অন্য দিকে শনিবারও ঠান্ডার কামড় অব্যাহত উত্তরবঙ্গে। এ দিন দার্জিলিঙের তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ০ ডিগ্রিতে। কোচবিহারে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ৪.৭ ডিগ্রি। শিলিগুড়ি আর জলপাইগুড়িতে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল যথাক্রমে ৪.৯ আর ৬.৪ ডিগ্রি।

আগামী কয়েক দিনের পূর্বাভাস অনুযায়ী গোটা রাজ্যেই প্রবল ঠান্ডার প্রকোপ চলবে। দক্ষিণবঙ্গে আরও কিছুটা নামতে পারে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। তবে নতুন একটি পশ্চিমী ঝঞ্ঝার প্রভাবে মঙ্গলবার থেকে কমবে শীতের দাপট।

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here