ভারতীয় সিনেমায় প্রথম ‘ট্রান্সসেক্সুয়াল’ নায়িকা অঞ্জলি আমির

0
360

কেরালা: দিন-কাল বদলেছে, বদলেছে মানুষের দৃষ্টি-ভঙ্গি। সিনেমার জগৎ আর সেই পুরোনো ছক কষা পথে চলছে না। গতানুগতিক ধারা ভাঙতে সবাই চায়। চায় একটু আলাদা, একটু অন্য রকম ভাবে দর্শকদের কাছে ছবি পরিবেশন করতে। ছবির তারকা থেকে স্টোরিলাইন, রোজ নতুন বা অন্য রকম চমক। ঠিক এমনই চমক দিলেন মালায়ালাম সুপারস্টার মাম্মুত্তি।

বেশ কিছু দিন আগে নিজের সহ-অভিনেতার সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিলেন এই মালায়ালাম সুপারস্টার। নাম অঞ্জলি আমির। মিষ্টি হাসি, আলতো করে কথা বলার ভঙ্গি এবং খুব নম্র আচরণ। যেমন হয়ে থাকেন মডেলরা। কিন্তু অঞ্জলি একটু আলাদা সবার থেকে। তিনি একজন গর্বিত ‘ট্রান্সসেক্সুয়াল’। আর তিনিই হতে চলেছেন ভারতের প্রথম ‘ট্রান্সসেক্সুয়াল’ নায়িকা।

তামিল এবং মালায়ালাম এই দু’টি ভাষায় হবে এই ছবিটি। তামিল ছবির নাম ‘পেরানবু’। মালায়ালম ছবির নাম এখনও ঠিক হয়নি। ছবির প্লট নিয়ে এখনও কিছু জানা যায়নি। জানা যায়নি কবে মুক্তি পাচ্ছে এই ছবি। মডেলিং দিয়ে কেরিয়ার শুরু। এ বার ছবির নায়িকা, একটু বিস্মিত এবং হতবাক অঞ্জলি।

বিজ্ঞাপন

কেরালার কোঝিকোড়ে এক মুসলমান পরিবারে জন্ম অঞ্জলির। বাইরেটা পুরুষ কিন্তু মনের ভেতরটা মেয়ে। প্রতি মুহূর্তে টানাপোড়েনে ভুগতেন তিনি। চাইতেন মেয়ে হতে। ২০ বছর বয়স থেকে লিঙ্গ পরিবর্তনের চিকিৎসা শুরু করিয়েছিলেন অঞ্জলি। এর জন্য তাঁকে অনেক তাচ্ছিল্য, অপমান সহ্য করতে হয়। খুব ছোটো বয়সে মা এবং কয়েক বছর আগে বাবা মারা যান। কিন্তু তিনি হাল ছাড়েননি। কষ্টকে জয় করেই এগিয়ে চলেছেন অঞ্জলি।Anjali-Ameer

তিনি জানিয়েছেন, “ক্লাস টেনের পর আমি ঠিক করি এ বার আমি বদলাবই। কিন্তু জানতাম আমার পরিবার মানবে না। তাই বাড়ি থেকে পালিয়ে যাই। তার পর কোয়েম্বত্তুর আর বেঙ্গালুরুর ট্রান্সজেন্ডার কমিউনিটির সঙ্গে থাকি বেশ কিছু বছর।’

তাঁর মতো রূপান্তরকামীদের অধিকাংশই পেট চালানোর জন্য যৌন পেশা, ভিক্ষাবৃত্তি করেন। কিন্তু অঞ্জলি জানেন, তিনি জীবনে কী হতে চান। তিনি জানিয়েছেন, “অভিনয় আমার প্রথম প্রেম। ছোটোবেলায় বিভিন্ন যুব উৎসবে অভিনয় করতাম। তাই আমার মনে হত অভিনয়ই হল এমন জিনিস, যার মাধ্যমে আমি আমার ব্যক্তিসত্তা প্রকাশ করতে পারব।”

Anjali-Ameer2

তাঁর লক্ষ্যের পথে হাঁটতে শুরু করেছেন অঞ্জলি। আর ফিরে দেখা নয়। এখন শুধু পথ ধরে এগিয়ে চলা। এর আগে ছোটোপর্দায় অভিনয় করেছেন অঞ্জলি। কিন্তু সেটা বেশি দিন নয়। কারণ তার ‘লিঙ্গ’ নিয়ে প্রশ্ন ওঠার পর, টিভি শো থেকে বাদ দেওয়া হয় অঞ্জলিকে।

তবে এখন তিনি খুব খুশি। এ-ও জানিয়েছেন, ভবিষ্যতে যদি কোনো ভালো বলিউড স্ক্রিপ্ট তাঁর কাছে আসে তা হলে তিনি তা ফিরিয়ে দেবেন না।

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here