তৈমুরের ডায়াপার বদল নিয়ে বিশ্বখ্যাত পত্রিকার প্রশ্ন করিনাকে, উত্তরে চমক বেবোর

0
saifina

ওয়েবডেস্ক: ছেলের সঙ্গে আর কতটুকু সময়ই বা কাটাতে পারেন করিনা কাপুর খান! তৈমুর আলি খানের এক বছর পূর্ণ হওয়ার আগে থেকেই তো করিনা ফিরে গিয়েছেন তাঁর পরিচিত লাইট-ক্যামেরা-অ্যাকশনের জগতে। আপাতত জোর কদমে চলছে সোনম কাপুর আর তাঁর নতুন ছবি বীরে দি ওয়েডিং-এর শুটিং।

তাহলে তৈমুর থাকে কার হেফাজতে? ঠাকুমা শর্মিলা ঠাকুর পতৌদির দেখভালেই কি বড়ো হচ্ছে সে? আর পাঁচটা পরিবারের মতো পতৌদিদের ক্ষেত্রেও কি ঠাকুমাই নাতির কেয়ারটেকার?

চিত্রতারকারা বাস্তব জীবনে আমার-আপনার মতো হলেও একটা ব্যাপারে কিন্তু তফাত থেকেই যায়। সেটা অর্থনৈতিক দিক। যা কিছুতেই ঘোচার নয়! অতএব, পতৌদিরা তৈমুরের দেখভালের জন্য একটা আয়া রাখতে পারছেন না, এ কি খুব বিশ্বাসযোগ্য কথা?

বিজ্ঞাপন

আরও পড়ুন: আমার তো একটাই ছেলে, দেখি সইফ এ ব্যাপারে কী করতে পারে: করিনা

মোটেই নয়। তা ছাড়া শর্মিলাও তো এই বয়সে যথেষ্ট সক্রিয়। এখন আর অভিনয়ে খুব একটা তাঁকে দেখা না গেলেও নানা সভা-সমিতিতে তো আকছারই যোগ দিয়ে থাকেন। তাহলে?

ঠিক এই জায়গা থেকেই বিশ্বখ্যাত ভোগ পত্রিকা তাদের এক সাক্ষাৎকারে আর কৌতূহল চেপে রাখতে পারেনি। সরাসরি জিজ্ঞেস করেই বসেছিলেন তাদের প্রতিনিধি- তৈমুরের ডায়াপার কে বদলে দেন? সইফ আলি খান? না কি আর পাঁচজন ভারতীয় মায়ের মতো এ কাজটা করিনাই করেন?

প্রথমটায় করিনা উত্তরটা দিতে চাননি! তা-না-না-না করে এড়িয়ে যেতে চাইছিলেন ব্যাপারটাকে। কিন্তু ভোগ-ও ছাড়বে না। তারা সত্যিটা জেনেই ছাড়বে নায়িকার মুখ থেকে।

অতএব শেষ পর্যন্ত ব্যাপারটা বলতে বাধ্য হলেন করিনা। তবে একেবারে সরাসরিও তিনি উত্তরটা দেননি।

কী বলেছেন নায়িকা?

“এ ব্যাপারে আমার চেয়ে সইফের হাতযশ বেশি”, হাসতে হাসতে কবুল করেছেন নায়িকা। এবার না-হয় আপনিই ব্যাপারটা বুঝে নিন!

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here