ওয়েবডেস্ক: কম চেষ্টা তো আর পাপারাজ্জিরা চালায়নি! যখনই সামনে এসেছেন নায়িকা, ক্যামেরার শক্তিশালী লেন্স তাক করে রেখেছে তারা শরীরের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গে। তুলে ধরার বিষয় তো একটাই- শরীরের কোন অংশে কত বেশি স্ট্রেচ মার্ক রয়েছে পরিণীতি চোপড়ার!

parineeti chopra

তা, না থাকার তো কথাও নয়! কেন, তা স্পষ্ট করে বলার আগে চোখ রাখুন ঠিক উপরের ছবিটায়। দেখছেন তো ছবিটার একেবারে বাঁ দিকে- এক সময় কতটা হৃষ্টপুষ্ট ছিলেন পরিণীতি! আর সে কথা কখনও অস্বীকারও করার চেষ্টা করেন না তিনি। খোলাখুলি জানিয়ে দেন- কী ছিলেন আর কী হয়েছেন!

বিজ্ঞাপন

ফলে, উপরের ওই ছবি, যেখানে নায়িকার শারীরিক কাঠামোর পরিবর্তনের ক্রমটা দেখা যাচ্ছে, সেটাই বলে দিচ্ছে শরীরে স্ট্রেচ মার্কের আধিক্যের রহস্য‍। মোটা থেকে রোগা হয়ে গেলে ত্বকও সেই অনুপাতে কুঞ্চিত বা প্রসারিত হয়। পরিণামে শরীরে আঁকিবুকি কেটে যায় স্ট্রেচ মার্ক! কাজেই নায়িকার শরীরে যে তা থাকবে, তাতে আর আশ্চর্য হওয়ার কী আছে!

parineeti chopra

কিন্তু যাঁরা তন্নতন্ন করে নজরদারি চালাচ্ছেন পরিণীতির এই শারীরিক নকশা নিয়ে, তাদের তো আর থামিয়ে রাখার জো নেই! ফলে, প্রায় বিরক্ত হয়েই যেন এ বার নিজের ইনস্টাগ্রাম হ্যান্ডেলে শরীরের স্ট্রেচ মার্ক তুলে ধরলেন নায়িকা। যদিও পাপারাজ্জিদের সরাসরি চ্যালেঞ্জ জানিয়ে তিনি সেটা করেননি। তাঁর এই ইনস্টাগ্রাম পোস্ট বলছে, তিনি আদতে তুলে ধরতে চেয়েছেন তাঁর নয়া রোদচশমাটিকে। কিন্তু সচেতন ভাবেই আড়াল করেননি কোমরের দু’টি স্ট্রেচ মার্ক। বরং, জ্যাকেটটাকে ঈষৎ পিছনে ঠেলে সবাইকে দেখাচ্ছেন তিনি সেই দাগ!

স্বাভাবিক ভাবেই পরিণীতির এই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় আরও বেশি করে জনপ্রিয় করে তুলেছে নায়িকাকে। সবাই মুক্ত কণ্ঠে সাধুবাদ জানাচ্ছেন নায়িকাকে। তিনি যেমন, ঠিক তেমন ভাবেই যে ধরা দিচ্ছেন জনতার দরবারে- এই বিষয়টাই এখন মুখে মুখে ফিরছে সবার!

সত্যিই তো! ধন্যি মেয়ে ছাড়া আর কী বা বলা যায়!

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here