এইচ-ওয়ানবি ভিসাধারীদের বেতন দ্বিগুন করার প্রস্তাব, চাপে ভারতীয় তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা

0
61

ওয়াশিংটন: এইচ-ওয়ানবি ভিসা-র সংশোধনী বিল পেশ হল মার্কিন সংসদে। অন্য নানা প্রস্তাবের পাশাপাশি ওই ভিসাধারীদের ন্যূনতম বেতন বাড়িয়ে ১ লক্ষ ৩০ হাজার ডলার (প্রায় ৮৯ লক্ষ টাকা) করার প্রস্তাবও রয়েছে। মার্কিন সংসদের নিম্ন কক্ষে পেশ করা হয়েছে প্রস্তাব। বিশ্লেষকরা মনে করছেন, বিল পাশ হলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কর্মরত ভারতীয় সহ অন্য যেকোনো বিদেশির ওপরই এর প্রভাব পড়তে বাধ্য। 

ক্যালিফোর্নিয়ার সাংসদ জো লফগ্রেন নতুন বিল প্রসঙ্গে বলেছেন, “পৃথিবীর বিভিন্ন কোণ থেকে দক্ষ কর্মীদের মার্কিন মুলুকে কাজের সুযোগ করে দিতেই এই বিল পেশ করা হল। মার্কিনদের চাকরি থেকে হঠিয়ে এদের কর্মসংস্থান হবে না বরং এদের জন্য নতুন কর্মসংস্থান তৈরি করা হবে।”

ক্ষমতায় আসার পর কথা রেখেছেন ট্রাম্প। নির্বাচনী প্রচারে যা বলেছিলেন, অভিষেকের পর অন্যথা হয়নি তার। দু’সপ্তাহও কাটেনি শপথ নেওয়ার, এরই মধ্যে দ্রুত বেশ কিছু ঘোষণা করেছেন। দেশের চাকরি সীমিত রাখবেন শুধু মার্কিন নাগরিকদের মধ্যেই, এমনটা তিনি আগেই জানিয়েছিলেন। সেদিক থেকে, ট্রাম্পের এই পদক্ষেপ তেমন অপ্রত্যাশিত নয়। কিন্তু স্বপ্ন বাস্তবায়িত করার রাস্তাটা বেশ অচেনাই সাধারণ মানুষের কাছে। রাজনীতির এবং অর্থনীতির আন্তর্জাতিক মহলের মত, ভিসাধারীদের বেতন দ্বিগুনের বেশি বাড়াতে হলে মার্কিন সংস্থাগুলি স্বাভাবিক ভাবেই চাইবে দেশের কর্মীদের নিয়োগ করতে। সেক্ষেত্রে সংস্থার খরচ বহুগুন কমে যাবে। 

বিজ্ঞাপন

এতদিন পর্যন্ত এইচ-ওয়ানবি ভিসাধারীদের ন্যূনতম বেতন ছিল ৬০ হাজার ডলার(প্রায় ৪০.৭ লক্ষ টাকা)। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে কর্মরত বিদেশিদের বেতন সংক্রান্ত আইন তৈরি হয়েছিল ১৯৮৯ সালে। এতদিন পর্যন্ত অপরিবর্তিত ছিল আইন। 

নতুন সংশোধনী বিল পেশের খবরের পর থেকেই ভারতীয় তথ্য প্রযুক্তি সংস্থাগুলির শেয়ার অনেকটাই পড়তে শুরু করেছে। 

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here