ট্রাম্পের নতুন অভিবাসন-নিষেধাজ্ঞা আটকে দিল আদালত

0

ওয়াশিংটন: এর আগে সাতটি মুসলিম প্রধান দেশের নাগরিকদের আমেরিকায় যাওয়ায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেই নিষেধাজ্ঞার ওপর স্থগিতাদেশ জারি করেছিল মার্কিন আদালত। পরে ইরাককে তালিকা থেকে বাদ দিয়ে ৬টি দেশের জন্য নতুন নির্দেশ জারি করে ট্রাম্প প্রশাসন। সঙ্গে উদ্বাস্তুদের আমেরিকায় ঢোকায় নিষেধাজ্ঞা তো আছেই। নতুন নির্দেশ কার্যকর হওয়ার মাত্র কয়েক ঘণ্টা আগে, তাতেও নিষেধাজ্ঞা জারি করল হাওয়াইয়ের একটি আদালত।

আরও পড়ুন: ট্রাম্পের অভিবাসন-নিষেধাজ্ঞায় স্থগিতাদেশ দিল মার্কিন আদালত

হাওয়াইয়ের জেলা বিচারক ডেরিক ওয়াটসন তাঁর ৪৩ পাতার রায়ে বলেছেন, এই নির্দেশ জারি হলে, তা হবে মুসলিমদের প্রতি বৈষম্যমূলক। এমন কোনো বৈষম্যমূলক আইন জারির সংস্থান মার্কিন সংবিধানে নেই।

বিজ্ঞাপন

মার্কিন সরকারের পক্ষ থেকে আদালতে বলা হয়, যেহেতু আইনটি সব মুসলিম প্রধান দেশের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়, তাই একে মুসলিম-বিদ্বেষী বলা চলে না। কিন্তু সরকারের এই যুক্তি মানেনি আদালত।

এদিন একটি জনসভায় যোগ দিয়ে আদালতের এই রায়কে ‘ভয়ঙ্কর’ আখ্যা দেন ট্রাম্প। তিনি বলেন, বিচারকের রায় ‘রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত’। এই আইন পাস করার জন্য তাঁর সরকার সুপ্রিম কোর্ট অবধি লড়াই করবে বলেও জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। তাঁর কথায়, তিনি প্রথম যে আইনটি এনেছিলেন, দ্বিতীয়টি তার ‘জলে ভেজা সংস্করণ’। “আমাদের প্রথম আইনটিতেই ফিরে যাওয়া উচিৎ। বিপদটা পরিষ্কার, আইনটা পরিষ্কার, আমার নির্দেশের কারণও পরিষ্কার”, বলেছেন ট্রাম্প। 

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here