চহ্বল জাদুতে হ্যাটট্রিক বিরাটবাহিনীর

0
100

বেঙ্গালুরু: ব্যাটিং ভালো হলেই হয় না। ম্যাচ জিততে গেলে চাই ভালো বোলার। প্রমাণ করলেন যজুবেন্দ্র চহ্বল। রায়না আর ধোনির দাপটে দুশোর গণ্ডী পেরলেও, মোক্ষম সময় চহ্বল জাদু না দেখালে হয়তো সিরিজটাই খোয়াত ভারত। টেস্ট, একদিনের পর এবার টি২০ সিরিজ জিতে ‘হ্যাটট্রিক’ করল টিম বিরাট। 

শুরুতেই ধাক্কা খায় ভারত। মাত্র দু’রান ফিরে যান বিরাট কোহলি। তিন নম্বরে নেমে নিজের পুরনো ফর্মের ঝলক দেখালেন সুরেশ রায়না। দ্রুত গতিতে রান করছিল রায়না-রাহুল জুটি। অষ্টম ওভারে ২২ রান করে ফিরে যান রাহুল। এরপর জুটি তৈরি হয় ধোনি এবং রায়নার মধ্যে। টি২০ কেরিয়ারে জীবনে প্রথম অর্ধশতরান করেন ধোনি। অর্ধশতরান করেন রায়নাও। পাঁচটা ছয় এবং দুটি চারের সাহায্যে ৬৫ করেন রায়না। ধোনির সংগ্রহ ৫৬। পাঁচ নম্বরে নেমে মাত্র ১০ বলে ২৭ করেন যুবরাজ। ৩টে ছয় এবং একটি চারে সাজানো ছিল যুবির ইনিংস। ৬ উইকেটে ২০২ রানে ইনিংস শেষ করে ভারত।

দুর্দান্ত শুরু করে ইংল্যান্ডও। প্রথমে স্যাম বিলিংসকে হারালেও ঝোড়ো ইনিংস খেলেন জেসন রয় আর জো রুট। তবে রয় আউট হওয়ার পর ভারতের স্বস্তি দূর চাপ বেড়ে যায় ইংল্যান্ড অধিনায়ক মর্গ্যানের জন্য। তাঁর মারমার কাটকাট ইনিংসের জন্য ম্যাচে ক্রমে ফিরতে শুরু করে ইংল্যান্ড। অন্যদিকে খুব সন্তর্পণে ইনিংস এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন রুটও। ১৪ তম ওভারে বিপক্ষ শিবিরে জোড়া ধাক্কা দিয়ে ভারতীয় শিবিরে অক্সিজেন এনে দেন যজুবেন্দ্র চহ্বল। ২১ বলে ৪০ করে ফেরেন মর্গ্যান। পরের বলেই ফেরেন রুট। তিনি করেন ৩৭ বলে ৪২।

পরের ওভারে ইংল্যান্ড শিবিরে আবার ধাক্কা। বুমরাহের বলে ফেরেন বাটলার। সিরিজ জয়ের আশা ততক্ষণে ছেড়ে দিয়ে ইংল্যান্ড। ১৬তম ওভারে ষষ্ঠ উইকেট পতন ইংল্যান্ডের। ফেরেন মঈন আলি। এবারও উইকেট শিকারি চহ্বল। দু’বল পর আবার চহ্বল ম্যাজিক। এবার তাঁর শিকার বেন স্টোক্স। কিছুক্ষণের মধ্যে আবার চহ্বল শো। প্যাভিলিয়নে ফিরলেন জর্ড্যান। ইংল্যান্ডের কফিনে শেষ পেরেকটি পুঁতে দেন চহ্বলই। নিয়মরক্ষার জন্য শেষ দুটি উইকেট বুমরাহ। দুই উইকেটে ১১৯ থেকে ১২৭-এই শেষ হয় গেল ব্রিটিশরা।    

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here