নয়া আগ্রাসন নীতি, কানাডায় বিক্রি হওয়া চিনা গ্লোবে ভারত মানচিত্রে বাদ পড়ল কাশ্মীর!

0
342
globe

ওয়েবডেস্ক: ২০১৫ সালের বিতর্কের রেশ এখনও কাটেনি! সেই সালে চিনে ও-দেশের সরকার পরিচালিত সিসিটিভি নামের এক চ্যানেলে ভারতের যে মানচিত্র দেখানো হয়েছিল, জম্মু এবং কাশ্মীর বাদ পড়েছিল তা থেকে! সেই বিতর্ক ফের প্রকাশ্যে এল ২০১৮-য়। এবার দেখা গেল, কানাডায় চিনের তৈরি যে সব গ্লোব বিক্রি হচ্ছে, সেখানেও ভারতের মানচিত্রে জম্মু এবং কাশ্মীরের কোনো অস্তিত্ব নেই! শুধু তা-ই নয়, এবারে ভারতের মানচিত্র থেকে বাদ পড়েছে অরুণাচল প্রদেশও!

জানা গিয়েছে, কানাডায় কস্টকো নামের এক আন্তর্জাতিক ডিপার্টমেন্টাল স্টোরে এলে বিক্রি হচ্ছে চিনের তৈরি এ রকম গ্লোব। ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসায় তা তুমুল ক্ষোভের জন্ম দিয়েছে কানাডা-প্রবাসী ভারতীয়দের মধ্যে। ইতিমধ্যেই তাঁরা টুইটারে সেই ক্ষোভ ব্যক্ত করতে শুরু করেছেন।

চিনের তৈরি এই সব গ্লোবে ভারতের মানচিত্রের দিকে তাকালে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে, সেখানে জম্মু এবং কাশ্মীর তো বটেই, পাশাপাশি অরুণাচল প্রদেশেরও কোনো অস্তিত্ব নেই। জম্মু এবং কাশ্মীরকে সেই গ্লোবে ভারত থেকে বিচ্ছিন্ন এক এলাকা বলে চিহ্নিত করা হয়েছে। আর অরুণাচল প্রদেশকে দেখানো হয়েছে চিনের অধিকৃত অঞ্চল হিসাবে।

ঘটনাটিকে কেন্দ্র করে বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম ডিপার্টমেন্টাল স্টোর কস্টকো-র বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছে কানাডার অফবিজেপি গোষ্ঠী। পাশাপাশি, গোষ্ঠী কড়া ভাষায় ব্যাপারটির সমালোচনা করে দোকান থেকে গ্লোবগুলি সরিয়ে নিতে বলেছে। এ ছাড়া কানাডা-প্রবাসী ভারতীয়রাও সমালোচনায় মুখর হয়েছেন। তাঁদের একজন টুইটে ভারতের বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজকে ট্যাগ করে আর্জি জানিয়েছেন- যাঁরা কস্টকো-য় কেনাকাটা করতে যাচ্ছেন, তাঁরা প্রত্যেকে যেন স্টোর কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ দায়ের করে আসেন!

তবে, শুধুই কস্টকো নয়। টরন্টো ইউনিভার্সিটির এক অধ্যাপক হুবহু একই রকম চিনা গ্লোব দেখতে পেয়েছেন হোমসেন্স নামে কানাডার আরও একটি ডিপার্টমেন্টাল স্টোরে। “আমি নতুন বছরের উপহার হিসাবে মেয়ের জন্য এটা কিনেছিলাম। বাড়ি ফিরে গ্লোবটা ভালো করে দেখতে গিয়ে ব্যাপারটা আমার নজরে আসে। আমাদের অবিলম্বে ঘটনার প্রতিবাদে একজোট হতে হবে। নইলে এ ভাবে ভারতের খণ্ডচিত্র ছড়িয়ে পড়বে বিশ্বে। নতুন প্রজন্ম সেটাকেই ভারতের রূপ বলে জানবে। এ ভাবে মগজধোলাইয়ের মাধ্যমেই এবার চিন আগ্রাসী রূপ ধারণ করছে”, দাবি অধ্যাপকের!

ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসায় এবং তার জেরে অনবরত অভিযোগের সম্মুখীন হওয়ায় কস্টকো তার দোকান থেকে এই জাতীয় সব চিনা গ্লোব সরিয়ে গুদামবন্দী করে রেখেছে। যদিও হোমসেন্স এ ব্যাপারে এখনও কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি!

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here