মুসলিমদের উপর নিষেধাজ্ঞা নয়, সব মিডিয়ার মিথ্যে প্রচার: ট্রাম্প

0
89

ওয়াশিংটন: “এই নিষেধাজ্ঞা মুসলিমদের উপর নয়, মিডিয়া মিথ্যে প্রচার করছে” – বিশ্ব জুড়ে প্রতিবাদ, বিমানবন্দরে মুসলিমদের আটকানো, ফেডেরাল কোর্টের স্থগিতাদেশ, এ সবের মধ্যেই ‘নন্দ ঘোষের’ উপর যত দোষ চাপিয়ে এ ভাবেই নিজের জারি করা নির্দেশটি সঠিক বলে বোঝানোর চেষ্টা করলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

রবিবার গভীর রাতে হোয়াইট হাউস থেকে জারি করা এক বিবৃতিতে মার্কিন প্রেসিডেন্ট তাঁর জারি করা নির্দেশনামার সঙ্গে বারাক ওবামার একটি কাজের তুলনা টেনেছেন। ২০১১-য় ওবামা প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন এক নির্দেশে ইরাকি শরণার্থীদের ভিসা নতুন করে পরীক্ষা করার কথা বলা হয়েছিল। তবে নয়া প্রেসিডেন্ট যা-ই বলুন, ওবামার জারি করা ওই নির্দেশনামার সঙ্গে ট্রাম্পের ফরমানের যে কোনো তুলনাই টানা যায় না, তা সংশ্লিষ্ট সকলেই বলছেন।

বিবৃতিতে ট্রাম্প বলেছেন, “স্পষ্ট করে বলতে চাই, এটা মুসলিমদের উপর নিষেধাজ্ঞা নয়, সংবাদ মাধ্যম সব মিথ্যে প্রচার করছে। এর সঙ্গে ধর্মের কোনো সম্পর্ক নেই। এর সঙ্গে সম্পর্ক আছে সন্ত্রাসের, এর সঙ্গে জড়িত রয়েছে আমাদের দেশের নিরাপত্তার প্রশ্ন। বিশ্ব জুড়ে আরও ৪০টিরও বেশি দেশ মুসলিম-প্রধান। এই নির্দেশনামায় সে সব দেশের মানুষরা তো পড়ছেন না।”

বিজ্ঞাপন

প্রেসিডেন্ট জোর দিয়ে বলেছেন, আগামী ৯০ দিন ধরে সব কিছু ভালো করে পর্যালোচনা করে নিরাপদ নীতি রূপায়ণ করার পর তাঁর দেশ আবার সব দেশের মানুষের জন্য ভিসা দেওয়া চালু করে দেবে।

তবে প্রেসিডেন্ট যা-ই বলুন, তাঁর নির্দেশনামা জারি হওয়ার পর এর রূপায়ণ নিয়ে বিভ্রান্তি চরমে পৌঁছেছে। গ্রিন কার্ডধারীদের ওপর এই নির্দেশনামার কী প্রভাব পড়বে তা নিয়ে কিন্তু ট্রাম্প প্রশাসনেই অস্পষ্টতা রয়েছে। উল্লেখ্য, গ্রিন কার্ডধারীরা যুক্তরাষ্ট্রের বৈধ স্থায়ী নাগরিক। সরকার এক দিন আগে যা বলেছে, তার বিরোধিতা করে ট্রাম্পের চিফ অব স্টাফ রাইনস্‌ প্রিবাস এনবিসি নিউজের ‘মিট দ্য প্রেস’-এ বলেছেন, “নতুন নির্দেশনামায় গ্রিন কার্ডধারীদের ওপর কোনো প্রভাব পড়বে না।”

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here