মর্নিং ওয়াকে বেরিয়ে সীমান্ত পেরোল জঙ্গলের হাতি, ভিডিওয় কাণ্ড দেখলে চমকে যাবেন!

0
769
elephant

ওয়েবডেস্ক: পশুদের জীবনেও কি মর্নিং ওয়াক নামের অভ্যাসটির চল আছে?

থাক বা না থাক, মানুষ তো পশুজীবন বিচারের সময় নিজের কিছু ধ্যান-ধারণা চাপিয়েই দেয় অবলাদের ঘাড়ে! ফলে, সেই দ‌ৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে মজা করে বলাই যায় যে মর্নিং ওয়াকে বেরিয়ে বর্ডার পেরোল জঙ্গলের হাতি। বিশেষ করে ঘটনাটি যখন মজার!

সম্প্রতি এই কাণ্ডটি ঘটিয়েছে যে হাতি, মানুষের তৈরি করা সীমান্তের নিরিখে তাকে চৈনিক বলেই পরিচয় দিতে হয়। জানা গিয়েছে, শনিবার সে চিনের য়ুনান প্রদেশের অন্তর্গত স্বশাসিত জিশুয়াংবানা দাই এলাকা থেকে গুটি গুটি পায়ে বেরিয়ে এসেছিল। সময় তখন ভোর সাড়ে চারটের কাছাকাছি!

সীমান্ত এলাকার নজরদারি ক্যামেরায় যে ফুটেজ ধরা পড়েছে, তাতে দেখা যাচ্ছে যে চিন থেকে এসে হাতিটি সীমান্ত পেরিয়ে ঢুকে পড়ে প্রতিবেশী দেশ লাওসে। বেশ নিরুদ্বিগ্ন মনে, আপাত একটা প্রশান্তির সঙ্গে সে ধীরে-সুস্থে প্রথমে সীমান্তের বেড়া ডিঙিয়ে যায়। তার পর নো ম্যানস ল্যান্ডে কিছু পায়চারির পর ফের সীমান্তের বেড়া টপকে ঢুকে পড়ে লাওসের লুয়াং নামথায়।

ঘটনাটা জানাজানি হওয়ার পর থেকেই বেশ শোরগোল পড়ে গিয়েছিল ওই সীমান্ত এলাকায়। খবর বলছে, নজরদারি ক্যামেরার ফুটেজে ধরা দেওয়া ঘটনাটি দেখেই সীমান্ত রক্ষার দায়িত্বে থাকা সৈন্যরা বিপদ সঙ্কেত জারি করে। কেন না, শীতকালে জঙ্গলে পর্যাপ্ত পরিমাণে খাবার পাওয়া যায় না। পরিণামে, মাঝে মাঝেই খাবারের খোঁজে জঙ্গলের হাতি সীমান্ত টপকে ঢুকে পড়ে কাছাকাছির গ্রামে। তার পর, ক্ষুধার তাড়নায় গ্রাম এবং গ্রামবাসীর জীবন তছনছ করে দিয়ে চলে যায়। এ বারেও যাতে সে রকম কিছু না হয়, সেই জন্যই বিপদ সঙ্কেত জারি করেছিলেন সেনারা।

যদিও তার প্রয়োজন ছিল না! কেন না, যা দেখা যাচ্ছে, এই হাতিটি সাতিশয় শান্ত এবং ভদ্র প্রকৃতির! উৎপাতের ধার-কাছ দিয়েও সে যায়নি। বরং, ঘণ্টা দুয়েক ঘোরাফেরা করে আবার ফিরে গিয়েছিল জঙ্গলেই!

সে কি খাবার না পেয়ে? না কি সে দিনের মতো বরাদ্দ ভোরের পায়চারি শেষ হয়ে গিয়েছিল বলে?

ভিডিওটি দেখে না হয় সিদ্ধান্তটি নিন আপনিই!

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here