নিউজিল্যান্ডের সৈকতে আটকে শ’চারেক তিমি, উদ্ধারে স্বেচ্ছাসেবীরা

0
123

ওয়েলিংটন: বিস্ময়কর ঘটনার সাক্ষী থাকল নিউজিল্যান্ডের ফেয়ারওয়েল স্পিট সৈকত। সমুদ্র থেকে সাঁতরে পাড়ে উঠে এসেছে প্রায় চারশো তিমি।

শুক্রবার সকালের এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। ইতিমধ্যে প্রায় তিনশোটি তিমির সৈকতেই মৃত্যু হয়েছে। এখনও যারা বেঁচে রয়েছে তাদের সমুদ্রে ফেরত পাঠানোর জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করছেন স্বেচ্ছাসেবকরা।

কিন্তু এই ঘটনার পেছনে কারণ কী?

বিজ্ঞানীদের মতে, অনেক সময় এমন হয় বৃদ্ধ, দুর্বল তিমি ভুল বিবেচনা করে জল ছেড়ে পাড়ে উঠে আসে। সাধারণত একজন যদি বিপদে পড়ে তাঁকে বাঁচাতে আরও একটি তিমি পাড়ে চলে আসে, সে বিপদে পড়লে আরও একটা। এ ভাবেই চলতে থাকে। শুক্রবারের ঘটনায় সঠিক তথ্য এখনও পাওয়া না গেলেও, এই রকম কিছু একটা ঘটে থাকতে পারে বলে মত বিশেষজ্ঞদের।


নিউজিল্যান্ডের সংরক্ষণ দফতরের অধিকর্তা অ্যান্ড্রু ল্যামাসন জানান, প্রায় ৫০০ জন স্বেচ্ছাসেবক কাজ করছেন ফেয়ারওয়েল স্পিট সৈকতে। তিনি বলেন, প্রায় একশোটা তিমিকে জলে ভাসিয়ে দেওয়া হলেও তাদের অধিকাংশই আবার সৈকতে ফিরে এসেছে।

বিপদ রয়েছে স্বেচ্ছাসেবকদেরও। ল্যামাসনের মতে তিমির লেজের ঝাপটায় চোট আঘাতের আশঙ্কা উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। তাঁর কথায়, “খুব সাবধানে কাজ করতে বলা হয়েছে স্বেচ্ছাসেবকদের।”

তবে এই ঘটনা নিউজিল্যান্ডে নতুন নয়। নিউজিল্যান্ডের ইতিহাসে প্রায় সতেরশো বার এমন ঘটনা ঘটেছে। ১৯১৮ সালে দেশের একটি সৈকতে আটকা পড়েছিল ছিল প্রায় হাজারখানেক তিমি।

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here