অর্থনীতি, বিদেশনীতির লড়াইয়ে জমজমাট হিলারি-ট্রাম্প প্রথম প্রেসিডেন্সিয়াল বিতর্ক

0
148

আট কোটি দর্শকের সামনে বিতর্ক। যুক্তি-প্রতিযুক্তির লড়াই তো ছিলই, থাকল কথার মাঝে অন্যকে থামিয়ে দেওয়াও। অর্থনীতি থেকে বিদেশনীতি। কর ফাঁকি থেকে আইসিস-কে ঘুর পথে সাহায্যের অভিযোগ। সবই থাকল এবারের প্রথম মার্কিন প্রেসিডেন্সিয়াল ডিবেটে। হিলারি ক্লিন্টন, তাঁর রিপাবলিকান প্রতিদ্বন্দ্বীকে সম্বোধন  করলেন ‘ডোনাল্ড’ বলে আর ট্রাম্প হিলারিকে বললেন, ‘সেক্রেটারি ক্লিন্টন’।

দু’পক্ষই পরস্পরের বিরুদ্ধে তথ্য বিকৃতি এবং মিথ্যা কথা বলার অভিযোগ এনেছেন এবং সত্যিটা জানার জন্য দর্শকদের যে যার নিজের ওয়েবসাইট দেখতে বলেছেন। ক্লিন্ট এদিন ট্রাম্পের অর্থনীতিকে ‘ট্রাম্পড আপ ট্রিকল ডাউন’ বলে কটাক্ষ করেন। অন্যদিকে ট্রাম্পের কথায় ডেমোক্র্যাট প্রার্থী হিলারির ‘শুধু বাগাড়ম্বর রয়েছে, কাজ কিছু করেন না’।

কোটিপতি ট্রাম্পের বিরুদ্ধে হিলারির অভিযোগ, তিনি আয়কর রিটার্ন প্রকাশ্য আনেননি, কর ফাঁকিও দিয়েছেন। ফলে আদৌ তিনি কতটা ধনী আর কত দানধ্যান করেন, সেটা বোঝার কোনও উপায় নেই। ট্রাম্পের উত্তর, তিনি যে খুবই ‘স্মার্ট’, এটাই তার প্রমাণ। তাঁর স্পষ্ট কথা, “আমি প্রচুর উপার্জন করি। কিছুদিনের মধ্যেই এমন একজন দেশ চালাবেন, যিনি টাকাপয়সার ব্যাপারটা কিছুটা বোঝেন.” এশিয়ার দেশগুলির সঙ্গে বাণিজ্যচুক্তি নিয়ে ক্লিন্টনকে আক্রমণ করেন ট্রাম্প। তাঁর অভিযোগ, হিলারি এই চুক্তির বিরোধিতা করছেন বটে, কিন্তু দায়িত্ব পেলে তিনি চুক্তিতে সই করে দেবেন।

হিলারিই প্রথম কোনো মহিলা, যিনি আমেরিকার বড় কোনো দলের হয়ে প্রেসিডেন্ট পদে লড়ার জন্য মনোনয়ন পেয়েছেন।

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here