দেরিতে ডেলিভারির অভিযোগ, ৮৫৩ কিমি দূরে গিয়ে ক্রেতাকে বেধড়ক মারধর দোকানদারের, দেখুন ভিডিও

0
china

ওয়েবডেস্ক: সাবধান! এই দেশটা যদিও চিন নয়, তবু কখন কী ঘটে বলা যায়!

পূর্ব চিনের হেনান প্রদেশের জেংজোউ-এর একটি সান্ধ্য দৈনিক মারফত জানা গিয়েছে, ওই অঞ্চলের এক মহিলা ৩০০ ইউয়ান, ভারতীয় মুদ্রায় ধরলে ২৯৩৮ টাকার পোশাক কেনাকাটা করেছিলেন একটি ই-কমার্স সাইট থেকে। সাইটটির নাম আলিবাবাস তাওবাও। অথচ যে সময়ের মধ্যে জিনিসটি তাঁর ঠিকানায় পৌঁছে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিল সংস্থা, তা পূরণ করা হয়নি। বিরক্ত হয়ে জিয়াও দাই নামের ওই মহিলা অভিযোগ করেন দেশের ক্রেতা সুরক্ষা দফতরে।

আর, তা থেকেই যাবতীয় সমস্যার সূত্রপাত! দাইয়ের এই অভিযোগে ক্ষিপ্ত হয়ে সংস্থাটির মালিক ঠিক করে, তাঁকে উচিত শিক্ষা দিতে হবে! যার জন্য পাক্কা ৮৫৩ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতেও দ্বিধা করেনি সে!

বিজ্ঞাপন

জেংজোউ সান্ধ্য দৈনিক জানিয়েছে, ওই শহরে পৌঁছে ই-কমার্স সংস্থাটির মালিক যোগাযোগ করে দাইয়ের সঙ্গে। তাঁর বরাত দেওয়া জিনিস পৌঁছে গিয়েছে- এই কথা ফোনে সে জানায় দাইকে। এর পর দাই তাঁকে একটি জায়গায় জিনিসটি ডেলিভারি দেওয়ার জন্য আসতে বললে সেখানেই অপেক্ষা করতে থাকে ওই ব্যক্তি।

দাই এসে পৌঁছনোর পরেই হঠাৎ করে তাঁর ঝাঁপিয়ে পড়ে আলিবাবাস তাওবাও-এর মালিক! তার হাতে কিছু জিনিসপত্র ভরা একটা ব্যাগ ছিল, যা দিয়ে ক্রমাগত বেধড়ক মারধর করা হতে থাকতে দাইকে। মহিলার মুখে বার বার ওই ব্যাগ দিয়েআঘাত করা হতে থাকে। সব শেষে দাইকে এক ধাক্কা মেরে পথে ফেলে দিয়ে পালিয়ে যায় ওই ব্যক্তি। পুরো ঘটনাটিই ধরা পড়ে ট্রাফিকের সিসিটিভি ক্যামেরায়।

সেই ভিডিও ফুটেজ থেকেই জাং নামের ওই ই-কমার্স সংস্থার মালিককে সনাক্ত করতে পারে পুলিশ। এর পর তাকে গ্রেফতারও করা হয়। পুলিশ জানিয়েছে, ঘটনায় গুরুতর ভাবে জখম হয়েছেন দাই। ঘটনায় প্রাথমিক ভাবে তাঁর দম বন্ধ হয়ে আসে। পরে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে দেখা যায়, তাঁর বাঁ হাতের কনুইয়ে চিড় ধরেছে। এ ছাড়া মুখের কয়েক অংশেও কাটাছড়ার দাগ রয়েছে।

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here