চিন সম্পর্কে সুর নরম, রাশিয়ার ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তোলার ইঙ্গিত ট্রাম্পের

0
95

ওয়াশিংটন: নির্বাচনে জেতার পর তাইওয়ানের প্রধানমন্ত্রীর ডোনাল্ড ট্রাম্পকে ফোনে শুভেচ্ছাবার্তা পাঠানো নিয়ে তোলপাড় হয়েছিল আন্তর্জাতিক রাজনীতি। তাইওয়ানের স্বতন্ত্র অস্তিত্বকে গুরুত্ব দেওয়ায় যথেষ্ট উষ্মা প্রকাশ করেছিল চিন। কয়েক মাস পেরোতেই পরিস্থিতি কিছুটা নরম হল। ভাবী মার্কিন প্রেসিডেন্ট জানালেন, এক দশক পুরোনো ‘এ্ক চিন’ নীতি নিয়ে আলোচনায় রাজি তাঁর প্রশাসন।

ওয়াল স্ট্রিট জার্নালকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ট্রাম্প বলেছেন, রাশিয়ার ওপর জারি করা নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার সম্ভাবনাও রয়েছে।

‘এক চিন’ নীতিতে তাঁর কতটা সমর্থন আছে, এই প্রশ্নের উত্তরে ভাবী প্রেসিডেন্ট জানালেন, “কোনও মন্তব্য করার আগে চিনের সঙ্গে আলোচনা করতে চাই”। ক্ষমতায় আসার পর চিনকে জাল নোটের কারবারি হিসেবে চিহ্নিত করবেন,এমনটা আগেই জানিয়েছিলেন রিপাবলিকান প্রার্থী। মত বদলেছেন এই প্রসঙ্গেও। জাল নোটের কারবারে চিনের ভূমিকা নিয়ে নিশ্চিত থাকলেও তাদের সঙ্গে আলোচনা না করে এখনই কোনও পদক্ষেপ করছে না ট্রাম্প প্রশাসন।

বিজ্ঞাপন

মস্কো-মার্কিন চুক্তি প্রসঙ্গে ট্রাম্প জানালেন, ‘আপাতত, কিছু সময়ের জন্য জারি থাকবে নিষেধাজ্ঞা’। একই সঙ্গে তিনি বলেন, “ভবিষ্যতে যদি রাশিয়া আমাদের সাহায্য করে তাহলে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার ক্ষেত্রে অসুবিধে হবে না”।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, সম্প্রতি হিলারি ক্লিনটনের সমর্থকরা অভিযোগ করেছিলেন, ২০১৬-র মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ট্রাম্পের জয়ে হাত রয়েছে রাশিয়ার।

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here