হলিউডের পরিচালনায় পুরুষ আধিপত্য; শেষ দশকে মহিলা পরিচালিত মাত্র ৪% : সমীক্ষা

0
85

লস অ্যাঞ্জেলস : সমস্যাটা শুধু প্রাচ্যের নয়। উদারনীতিবাদে বিশ্বাসী পাশ্চাত্যের দেশগুলোতেও ছবিটা খুব কিছু আলাদা নয়। শেষ এক দশকের সবচেয়ে বেশি ব্যবসা করা এক হাজারটি হলিউডি ছবির মধ্যে মহিলা পরিচালকের সংখ্যাটা মাত্র ৪%। সম্প্রতি ‘অ্যানেনবার্গ স্কুল ফর কমিউনিকেশন অ্যান্ড জার্নালিজম’-এর গবেষকদের পর্যবেক্ষণে উঠে এসেছে এই তথ্য। 

গবেষণার রিপোর্ট অনুযায়ী, শেষ দশ বছরের হলিউডের প্রতি ২৫টি ছবির মধ্যে একটি ছবি মহিলা পরিচালকের তৈরি। এঁদের মধ্যে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের মহিলা পরিচালকদের প্রতিনিধিত্বের হারটা আরও ভয়ঙ্কর। হাজারের মধ্যে মাত্র তিনটি ছবি আফ্রিকান-আমেরিকান, তিনটি এশিয় মহিলা পরিচালকের। লাতিন আমেরিকান মহিলার পরিচালনায় তৈরি হয়েছে সাকুল্যে একটি ছবি। অ্যানেনবার্গ স্কুলের গবেষক স্মিথ বলেছেন, “হলিউড যদি বা কখনও মহিলা পরিচালকের ছবি করার কথা ভেবেও থাকে, সেটা অবশ্যই সাদা চামড়ার মহিলার। সাদা এবং কালো চামড়ার মহিলার কাজের অভিজ্ঞতা সম্পূর্ণ আলাদা”।

হলিউডি ছবি পরিচালনার ক্ষেত্রে মহিলাদের বয়সটাও হয়ে ওঠে একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। গবেষণা বলছে, পুরুষ পরিচালকরা রীতিমত বৃদ্ধ বয়সে পৌঁছেও দিব্যি পরিচালনা করেন। মহিলাদের পরিচালনার ক্ষেত্রে আদর্শ সময় ধরা হয় ৩০ থেকে ৬০। পরিচালনার ক্ষেত্রে মহিলাদের জন্য সাধারণত বেধে দেওয়া হয় ‘ড্রামা’, ‘কমেডি’, ‘অ্যানিমেশন’ এই সমস্ত ধারার ছবি। অথচ পুরুষদের ক্ষেত্রে এ রকম সীমাবদ্ধতা থাকে না। সব ধারাতেই পুরুষ পরিচালকের ছবি দেখতে সমান স্বচ্ছন্দ হলিউডের দর্শক।

পরিসংখ্যান অনুযায়ী সবচেয়ে বেশি মহিলা পরিচালকের ছবি প্রযোজনা করে ওয়ারনার ব্রাদার্স। তালিকায় তারপর যথাক্রমে রয়েছে টোয়েন্টিয়েথ সেঞ্চুরি ফক্স, ইউনিভার্সাল এবং সোনি পিকচার্স।

 

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here