জলপাইগুড়িতে রহস্যজনক পোস্টার, আতঙ্কিত না হতে আর্জি পুলিশের

0
166

নিজস্ব সংবাদদাতা, জলপাইগুড়ি: রাত সাড়ে ৯টা। ধীরে ধীরে নিস্তব্ধ হচ্ছে শহর জলপাইগুড়ি। এমন সময় পথচলতি একজনের চোখ পড়ল রাস্তার পাশের বন্ধ পানের দোকানে। বন্ধ দোকানের দরজায় সাঁটা একটি পোস্টার – ‘সাবধান, দিনকাল ভাল না, পথ চলতে চলতে,  হটাৎ করেই হতে পারেন অপহরন’। 

ঠিক এই ভাষাতেই, এই বানানেই সতর্কবাণী লেখা ছিল সেই পোস্টারে। স্বাভাবিক ভাবেই চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে। এর পরেই খবর আসে শহরের বেশ কয়েকটি গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় এই ধরনের পোস্টার পড়েছে। খবর যায় পুলিশের কাছেও। খবর পাওয়ার পরই নড়চড়ে বসে জেলা পুলিশ। অভিযানে বেরিয়ে মঙ্গলবার সকালে শহরের গুরুত্বপূর্ণ জায়গাগুলি থেকে পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা হয়। তবে শহরের বুকে এই ঘটনার কথা ছড়িয়ে পড়তে সময় লাগেনি।

কিন্তু প্রশ্ন হল, কী উদ্দেশ্যে এই ধরনের পোস্টার? কারাই বা লাগিয়ে গেল? এই সব প্রশ্ন উঠতে শুরু করে শহরবাসীর মধ্যে। এরই মধ্যে আবার কে যেন গুজব ছড়িয়ে দেয়, দিন কয়েক আগে ময়নাগুড়িতেও একই ধরনের পোস্টার লাগিয়ে দিয়েছিল কারা। সাধারণ মানুষের মধ্যে যাতে আতঙ্ক  ছড়িয়ে না পড়ে, তার জন্য তড়িঘড়ি বিশিষ্ট মানুষদের নিয়ে একটি বৈঠক করেন ডেপুটি পুলিশ সুপার (হেডকোয়ার্টার) মানবেন্দ্র দাস। জলপাইগুড়ির পুরপ্রধান মোহন বসুও সেই বৈঠকে যোগ দেন। এই রকম কিছু ফের নজরে এলে সঙ্গে সঙ্গে পুলিশ-প্রশানের কাছে জানানোর জন্য অনুরোধ করা হয় বৈঠকে। জলপাইগুড়ি চেম্বার অফ কমার্সের সম্পাদক বিকাশ দাস জানিয়েছেন, তাঁরা এ ব্যাপারে সতর্ক থাকবেন। তবে এখনও পর্যন্ত কোনো বিতর্কিত সংগঠন এই পোস্টার লাগানোর দাবি জানায়নি। তাতেই সন্দেহ আরও ঘনীভুত হয়েছে। পুলিশ ও সাধারণ মানুষের নজর ঘোরাতেই কি এই ধরনের সতর্কবাণী কোনো অসাধু চক্রের? ডিএসপি (হেডকোয়ার্টার) মানবেন্দ্র দাস জানিয়েছেন, তাঁরা বিষয়টিকে হালকা ভাবে নিচ্ছেন না। ইতিমধ্যেই ‘সোর্স’ মারফত খোঁজখবর শুরু হয়েছে। তবে গুজবে কান দিয়ে অযথা আতঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ নেই বলেই দাবি ডেপুটি পুলিশ সুপারের।

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here