প্রবল শীত উপেক্ষা করে দিল্লিতে চলছে বিশ্ব বইমেলা

0
300
delhi bookfair
হরপ্রসাদ সেন

প্রতি বছরের মতোই এ বছরও দেশের রাজধানী দিল্লিতে শুরু হল বিশ্ব বইমেলা। আকারে এবং বহরে কলকাতার মতো না হলেও শীতের মরশুমে দিল্লিবাসীর কাছে একটা বড়ো আকর্ষণ এই বইমেলা।

ন্যাশনাল বুক ট্রাস্ট (এনবিটি) আয়োজিত এই বইমেলায় স্বদেশি এবং বিদেশি মিলিয়ে হাজির হয়েছে প্রায় আটশো প্রকাশনী সংস্থা। এসেছে ৪০টি বিদেশি প্রকাশন সংস্থা। স্টলের সংখ্যা প্রায় পনেরোশো। ‘ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন’কে এ বার বইমেলায় সম্মাননীয় অতিথির সম্মান দেওয়া হয়েছে। ৬ জানুয়ারি থেকে শুরু হওয়া এই মেলার স্টলগুলি তৈরি করার ক্ষেত্রে পরিবেশ এবং জলবায়ু পরিবর্তনের কথা মাথায় রাখা হয়েছে। পরিবেশবান্ধব বস্তু দিয়ে স্টলগুলো তৈরি করা হয়েছে।

প্রগতি ময়দানের বিশাল একটা অংশকে ভেঙে ফেলে নতুন ভাবে তৈরি করা হচ্ছে, তাতে অবশ্য বইমেলা আয়োজনে কোনো সমস্যা হয়নি। মেলা আয়োজন করার ক্ষেত্রে এনবিটি যতটা সম্ভব দর্শক ও বইপ্রেমীদের কথা মাথায় রেখেছে। তবে দিল্লির প্রবল ঠান্ডাই হোক, বা অন্য কিছু, বইপ্রেমী মানুষের সংখ্যা কিন্তু এখনও সে ভাবে চোখে পড়ছে না মেলায়।

এ বার বইমেলার নিজেদের সাহিত্যকে তুলে ধরতে বদ্ধপরিকর নবগঠিত কয়েকটি দেশের প্রকাশনী সংস্থাগুলি। তারা তাদের লেখকদের সঙ্গে এ দেশের পাঠকদের পরিচয় করিয়ে দেওয়ার জন্য তাঁদের সদ্য প্রকাশিত বেশ কিছু বইও নিয়ে মেলায় এসেছে। সার্বিয়ার স্টলে গিয়ে এ রকমই এক জন লেখকের লেখার সঙ্গে পরিচিত হলাম। ‘ইউরোপিয়ান ইউনিয়নই-এর জন্য আলাদা একটা হলের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

মেলায় এ ক’দিন চলবে সাহিত্য সম্পর্কিত চারশোরও বেশি অনুষ্ঠান। ওই সব অনুষ্ঠানে সাহিত্য বিষয়ে ভাবনাচিন্তা ও আলাপআলোচনার সুযোগ পাবেন লেখক, প্রকাশক ও পাঠকরা। ইতিমধ্যেই নবাগত বেশ কিছু লেখক প্রকাশ করলেন তাঁদের বই।

তবে বিদেশি স্টলগুলির থেকে দেশিও স্টলগুলিতে ভিড় তুলনায় বেশি চোখে পড়ল। যেটা সব থেকে বেশি চোখে পড়ল সেটা হল যুবক-যুবতীদের ভিড়। মেলায় আসা বইপ্রেমীদের মধ্যে নবপ্রজন্মের উপস্থিতিই বেশি মনে হল। বোঝা গেল, মোবাইলের যুগেও তরুণ বয়সিদের মধ্যে বই নিয়ে উৎসাহ আদৌ কমেনি। ভিড় ছিল শিশুদের স্টলেও। এই সবের মধ্যে একটা আক্ষেপ থাকল, বাংলা বইয়ের স্টলের অভাব।

তবে অন্য বার যে ভাবে বইমেলা উপভোগ করেছি, এ বার তার থেকে কিছুটা কমই উপভোগ্য হল। হতে পারে এটা ঠান্ডার কারণে এমন হল। তবে আশা করব আগামী কয়েক দিন সপরিবার এসে বইমেলা ভরিয়ে দেবে দিল্লিবাসী। মেলা চলবে ১৪ তারিখ পর্যন্ত।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here