পড়ুয়া স্কুলে সুরক্ষিত কিনা, এ বার জানিয়ে দেবে আধার কার্ড!

0
548
aadhaar

ওয়েবডেস্ক: দেশ জুড়ে অনেকেরই সংশয়, আধার কার্ডের সহায়তায় আদতে জনতাকে নজরদারির আওতায় নিয়ে আসতে চাইছে সরকার! সেই সন্দেহ যে একেবারে অমূলক নয়, তা প্রমাণ পেল সাম্প্রতিক এক সরকারি বিবৃতিতে। তবে এই নির্দিষ্ট নজরদারির লক্ষ্যে থাকছে কেবল স্কুলপড়ুয়ারাই। এবং তাদের স্বার্থ সুরক্ষিত রাখার জন্যই এ হেন কর্মসূচি নেওয়া হচ্ছে।

মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক সম্প্রতি জানিয়েছে, আধার কার্ডের সহায়তায় তারা দেশের সব স্কুলপড়ুয়াকে নজরদারির আওতায় নিয়ে আসতে চলেছে। এর সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে পড়ুয়াদের ভবিষ্যৎ সুরক্ষার প্রশ্নটি। “স্কুল পালিয়ে যায়, এমন পড়ুয়ার সংখ্যা আমাদের দেশে কম কিছু নয়। এ বার যাতে তারা স্কুল ছেড়ে বাইরে ঘুরে বেড়াতে না পারে, সেই জন্যই আধার কার্ডের মাধ্যমে তাদের উপর নজরদারির পরিকল্পনা নেওয়া হচ্ছে”, বলা হয়েছে মন্ত্রকের তরফে।

মন্ত্রক আরও জানিয়েছে, এ হেন পরিকল্পনার পিছনে উদ্দেশ্য মূলত দ্বিবিধ। প্রথমত, স্কুলপড়ুয়াদের সুরক্ষার বিষয়টি নিশ্চিত করা! অনেক পড়ুয়াই নিয়মকানুনের চোটে অতিষ্ঠ হয়ে স্কুল থেকে পালিয়ে যায়। সে ক্ষেত্রে অনেক সময়েই তাদের কুসঙ্গে পড়ার একটা আশঙ্কা থাকে। ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে এ ভাবে অপরাধ জগতের হাত থেকে রক্ষা করতে বদ্ধপরিকর হচ্ছে সরকার।

দ্বিতীয় উদ্দেশ্যটি হল, দেশে শিক্ষার প্রসার এবং শিক্ষিতের সংখ্যা বাড়ানো। স্কুল পালালে পড়ুয়াদের পড়াশোনা অসম্পূর্ণই থেকে যায়। ফলে, অশিক্ষা বাড়ে, যার জেরে পিছিয়ে পড়ে দেশ। সেই সমস্যা সমাধানের জন্যও এ বার আধার কার্ডের মাধ্যমে পড়ুয়াদের উপর নজরদারি চালাতে চাইছে কেন্দ্র।

“আধার নম্বরের সাহায্যে পড়ুয়ারা যেখানেই থাকুক না কেন, আমরা তা জানতে পারব। সেইমতো স্কুল পালালে তারা কোথায় আছে, জানা যাবে সহজেই। তখন তাদের স্কুলে ফিরিয়ে আনতেও আর অসুবিধা হবে না”, জানিয়েছেন মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের এক আধিকারিক।

মন্ত্রক আরও জানিয়েছে, মূলত নিম্নবিত্ত পরিবারের সন্তানরাই স্কুল ছেড়ে ঘন ঘন পালিয়ে যায়। “তার একটা কারণ হতে পারে ভাষাগত সমস্যা। বাড়িতে তারা যে ভাষায় কথা বলে, স্কুলের বইপত্রে সেটা পায় না। তার থেকেই তারা পড়াশোনায় আগ্রহ হারায়। সে জন্য  গ্রামীণ স্কুলগুলোতে স্থানীয় ভাষায় বইপত্র পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে”, বলছে সরকার।

এই কর্মসূচি গ্রহণে আপাতত অসুবিধা শুধু একটাই! দেশের সব পড়ুয়ার কাছেই যে আধার কার্ড থাকবে, তার নিশ্চয়তা নেই। “সেই জন্য আমরা সব জেলায় বার্তা পাঠিয়েছি। জানিয়েছি, জেলাগুলো যেন তাদের অন্তর্গত সব শিশু, সে তারা স্কুলে যাক বা না যাক, তাদের আধার কার্ড দেওয়ার ব্যবস্থা করে”, বক্তব্য মন্ত্রকের ওই আধিকারিকের।

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here