দেশে প্রথম, নাগপুরের রাস্তায় নামল ২০০টি পরিবেশ বান্ধব ‘ইলেকট্রিক ট্যাক্সি’

0
467

নাগপুর : কেন্দ্রে মোদী সরকারের তৃতীয় বর্ষপূর্তিতে নাগপুরের রাস্তায় নামল ২০০টি পরিবেশ বান্ধব যান। শুক্রবার মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশ এই বৈদ্যুতিক যানের উদ্বোধন করলেন। এর সঙ্গে সঙ্গে নাগপুরে একটি চার্জিং স্টেশনেরও উদ্বোধন করলেন তিনি। এটি হল দেশের মধ্যে প্রথম ‘মাল্টি মডেল ইলেক্ট্রিক ভেহিক্যাল প্রজেক্ট’।

আপাতত এই গাড়িগুলি চলবে ‘ওলা’ সংস্থার অ্যাপের মাধ্যমেই। এই ২০০টি গাড়ির মধ্যে ১০০টি বৈদ্যুতিক ট্যাক্সি তৈরি করেছে মহিন্দ্রা অ্যান্ড মহিন্দ্রা গাড়ি প্রস্তুতকারক সংস্থা। কাইনাটিক গ্রিন এনার্জি অ্যান্ড পাওয়ার সলিউসান ১০০টি ই-রিক্সা সরবরাহ করেছে।

এ দিন নাগপুর বিমানবন্দরের কাছে একটি ই-চার্জিং স্টেশনও উদ্বোধন করেন মুখ্যমন্ত্রী ফড়নবিশ। এই ই-চার্জিং স্টেশনটি তৈরি করেছে ওলা সংস্থা। এ ছাড়াও নাগপুরে আরও তিনটি ই-চার্জিং স্টেশন স্থাপন করেছে সংস্থাটি। ২০০টি গাড়ির জন্য এই চারটি ছাড়াও গোটা শহরে মোট ৫৩টি ই-চার্জিং স্টেশনের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

নাগপুর ও দিল্লিতে সরকারি পরিবহণের মাধ্যম হিসেবে বৈদ্যুতিক যানবাহন ব্যবহার করার জন্য, পরিবহন আইন সংশোধনে সহায়তা করেছেন নাগপুরের সাংসদ তথা কেন্দ্রীয় সড়ক পরিবহন ও জাতীয় সড়ক মন্ত্রী নিতিন গড়করি।

গড়করি বলেন, প্রতি বছর দেশে প্রায় চল্লিশ লক্ষ টাকার অপরিশোধিত তেল আমদানি করা হয়, যার অর্থ দেশের টাকা রফতানি করে দূষণ আমদানি করা হয়। তাই চেষ্টা করা হচ্ছে বিদেশের প্রতি এই নির্ভরশীলতা কমিয়ে দূষণমুক্ত পরিবেশ গড়ে তুলতে। সেই জন্যই আগামী দিনের যানবাহন সৌরশক্তি, ইথানল, জৈব গ্যাসের মতো জ্বালানির সাহায্যে চালানোর লক্ষ্য মাত্রা নেওয়া হয়েছে।

ওলার সিইও ও সহ প্রতিষ্ঠাতা ভবিষ অগ্রবাল বলেন, ওলা নাগপুরের এই নতুন প্রকল্পের জন্য ইতিমধ্যেই ৫০ কোটি টাকা খরচ করেছে। ২০২০ সালের মধ্যে গোটা দেশের সব ক’টি শহরে ই-যানবাহন চালানোর জন্য আরও ২০০ কোটি ডলার ব্যয় করার লক্ষ্য মাত্রা নিয়েছে সংস্থা।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here