‘ট্রাম্প জেরুসালেমকে ইজরায়েলি রাজধানী ঘোষণা করলেও ভারতের প্যালেস্তাইন নীতি পালটাবে না’

0
256
trump on israel

ওয়েবডেস্ক: প্যালেস্তাইন নিয়ে ভারতের নীতি ‘স্বাধীন এবং স্থায়ী’ এবং কোনো ‘তৃতীয় দেশ’ সেই নীতিকে প্রভাবিত করতে পারবে না। ইজরায়েল নিয়ে নতুন মার্কিন নীতির ঘোষণার কিছুক্ষণের পরেই এই কথা জানিয়ে দিয়েছেন ভারতের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র রবিশ কুমার।

বুধবার জেরুসালেমকে ইজরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ইজরায়েল এবং প্যালেস্তাইনের মধ্যে যাবতীয় দ্বন্দ এই জেরুসালেমকে ঘিরে। এই সিদ্ধান্তের পরেই রাষ্ট্রপুঞ্জ, ইউরোপীয় ইউনিয়নের তোপের মুখে পড়েছেন ট্রাম্প। কারণ দুই দেশ নীতিতে বিশ্বাসী ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং রাষ্ট্রপুঞ্জ জেরুসালেমকে ইজরায়েলের রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি দেয়নি। এর ফলে পশ্চিম এশিয়ায় অস্থিরতা আরও বাড়বে বলেই মনে করছে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞ মহল।

ভারত এবং যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্ক অত্যন্ত ভালো হলেও, এই সিদ্ধান্ত যে ভারতের নীতিতে প্রভাব ফেলবে না তা সাফ জানিয়ে দেন রবিশ। অ-আরব দেশ হিসেবে ভারতই প্রথম যারা প্যালেস্তাইনকে আলাদা দেশ হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে। সাম্প্রতিক কালে ইজরায়েলের সঙ্গে ভারতের বন্ধুত্ব বাড়লেও, প্যালেস্তাইন নীতি যে একই থাকবে সে কথাও ঠারেঠোরে বুঝিয়ে দেন তিনি।

মে মাসে ভারত সফরে এসেছিলেন প্যালেস্তাইনের প্রেসিডেন্ট মেহমুদ আব্বাস। তাঁর সঙ্গে বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেন, “ভারত দুই দেশ নীতিতে বিশ্বাসী। ভারত চায় ইজরায়েল এবং প্যালেস্তাইন দু’টি দেশের শান্তিপূর্ণ সহাবস্থান।” ২৫ নভেম্বরেও প্যালেস্তাইনের উদ্দেশে একটি বার্তায় মোদী বলেন, “আমরা চাই স্বাধীন, সার্বভৌম দেশ হিসেবে প্যালেস্তাইনকে স্বীকৃতি দেওয়া হোক।”

ট্রাম্পের এই সিদ্ধান্তকে ‘ঐতিহাসিক’ আখ্যা দিয়েছে ইজরায়েল, অন্য দিকে জেরুসালেমকে প্যালেস্তাইনের রাজধানী দাবি করে তাঁর সিদ্ধান্তকে ‘হতাশাজনক’ আখ্যা দিয়েছেন প্যালেস্তাইনের প্রেসিডেন্ট।

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here