রজনীকান্তের সঙ্গে জোট বাঁধার ইঙ্গিত কমল হাসনের, তবে একটি শর্ত সাপেক্ষে!

0
452
Rajinikanth and Kamal Haasan

ওয়েবডেস্ক: শনিবার হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটিতে হাজির হয়েছিলেন রাজনীতিবিদে রূপান্তরিত জনপ্রিয় ভারতীয় অভিনেতা কমল হাসন। সেখানে এক দিকে যেমন দুর্নীতিমুক্ত তামিলনাড়ু গঠনের প্রতিশ্রুতি দিলেন তিনি, তেমনই দক্ষিণ ভারতের আরেক অভিনেতা থেকে রাজনীতিবিদে রূপান্তরিত হওয়া ব্যক্তিত্ব রজনীকান্তের সঙ্গে জোট বাঁধার সম্ভাব্য ইঙ্গিতটিও দিয়ে রাখলেন।

Rajinikanth and Kamal Haasan

গত বছরের ৩১ ডিসেম্বর যখন ভক্তদের ডেকে, সভা করে রজনীকান্ত তাঁর রাজনীতিতে যোগ দেওয়ার সিদ্ধান্তের কথা খোলসা করে দিলেন, সেই সময় থেকেই শুরু হয়েছিল জোর কানাকানি। কেন না, রজনীকান্তের আগেই ই পালানিস্বামী সরকারের দুর্নীতির বিরোধিতা করে রাজনীতির ময়দানে পা রেখেছিলেন কমল হাসন। ফলে, প্রশ্ন উঠছিল, এক দিকে যেমন দক্ষিণী এই দুই বিখ্যাত নায়ক একসঙ্গে বহু ছবি করেছেন, তেমনই কি অন্য দিকে রাজনীতির ময়দানেও জোট বাঁধবেন তাঁরা?

বিজ্ঞাপন

Rajinikanth and Kamal Haasan

আরও পড়ুন: দেখুন ভিডিওয় একই চপারে কমল-রজনীর মালয়েশিয়া সফর, এবার কি একসঙ্গেই রাজনীতির পথ চলা?

এ নিয়ে কিছু দিন আগেই জনপ্রিয় এক দক্ষিণী দৈনিক ‘আনন্দ বিকতন’-এ লিখেছিলেন হাসন, বিষয়টি ছবির তারকা বাছাইয়ের মতো নয়। তবে পাশাপাশি এ কথাও লিখতে ভোলেননি, দু’জনকেই ভেবে-চিন্তে দেখতে হবে যে তাঁদের রাজনৈতিক মতবাদ পরস্পরের সঙ্গে খাপ খায় কি না! অন্য দিকে, রজনীকে যখনই এ ব্যাপারে প্রশ্ন করা হয়েছে, তিনি তাঁর স্বভাবোচিত ভঙ্গিতে একটা কথাই বলেছেন- “এর উত্তর সময় দেবে!”

Rajinikanth and Kamal Haasan

যদিও হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটিতে কমল হাসন আগেভাগেই সেই ইঙ্গিত দিয়ে রাখলেন। তিনি সাফ জানিয়েছেন, “লাল রাজনীতিগত ভাবে আমার রং নয়। আর গেরুয়া যদি রজনীর রং হয়, তবে তো ওঁর সঙ্গে জোট বাঁধার কোনো সম্ভাবনাই নেই!” পাশাপাশি এ দিন তিনি নিজের রাজনৈতিক ওয়েবসাইটিও জনসমক্ষে আনেন। “আমার ছবিগুলো সমসাময়িক অন্য অভিনেতাদের থেকে আলাদা। আমি চাই, রাজনীতির ক্ষেত্রেও সে ভাবেই অন্যদের থেকে আলাদা থাকতে”, জানিয়েছেন তিনি।

Rajinikanth and Kamal Haasan

জানা গিয়েছে, আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি থেকে হাসন শুরু করছেন তাঁর রাজ্য পরিক্রমা। সেই পরিক্রমা অনুষ্ঠানের নাম রাখা হয়েছে ‘নালাই নমধে’। দক্ষিণী থেকে বাংলায় তর্জমা করলে যার মানে দাঁড়ায়- ‘ভবিষ্যৎ আমাদের’! হাসন জানিয়েছেন যে রাজনীতির কাজে সক্রিয় ভাবে ঝাঁপিয়ে পড়ার আগে তিনি রাজ্যের সব মানুষদের সঙ্গে দেখা করে তাঁদের অভিযোগের কথা শুনতে চান, নিজের চোখে দেখতে চান অভাব-অসুবিধাগুলি। রামেশ্বরম থেকে এই পরিক্রমা শুরু করবেন তিনি।

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here