জীবনদায়ী স্টেন্টের দাম কমল ৮৫%

0
233

নয়াদিল্লি: হৃদযন্ত্রের সমস্যার জন্য যাঁদের অ্যাঞ্জিওপ্লাস্টি প্রয়োজন, তাঁদের জন্য খুশির খবর। জীবনদায়ী স্টেন্টের দাম ৮৫% কমিয়ে দিল ওষুধের দাম নিয়ন্ত্রণকারী জাতীয় সংস্থা ‘ন্যাশনাল ফার্মাসিউটিক্যাল প্রাইসিং অথোরিটি’।

বাজারে চালু ‘ড্রাগ ইল্যুটিং স্টেন্ট’-এর দাম এতদিন ছিল ৪০হাজার থেকে ১.৯৮ লক্ষ টাকা। এখন থেকে তার দাম হল ২৯,৬০০টাকা।

বাজারে চালু ‘বেয়ার মেটাল স্টেন্ট’-এর দাম এতদিন ছিল ৩০ হাজার থেকে ৭৫ হাজার টাকা। এখন থেকে তার দাম হল ৭,২৬০ টাকা।

এর আগে এনপিপিএ জানিয়েছিল, স্টেন্ট তৈরি হওয়ার পর থেকে ক্রেতার কাছে পৌঁছনোর পথে পণ্যটির দাম ১০০০ গুন বেড়ে যায়। হাসপাতালগুলি প্রায় ৬৫০ শতাংশ লাভ করে। হৃদরোগ বিশারদ ও হাসপাতালগুলি স্টেন্ট বিক্রির ক্ষেত্রে বিপুল পরিমাণ কমিশন নেয় বলেও জানা গিয়েছিল। 

গুরুত্বপূর্ণ ওষুধের জাতীয় তালিকায় স্টেন্টকে ঢোকানো হয় গত বছরের জুলাই মাসে। কেন্দ্রের ওষুধের দাম নিয়ন্ত্রণ সংক্রান্ত বিধির ১ নম্বর শিডিউলে স্টেন্টকে আনা হয় গত ডিসেম্বরে।

এখন থেকে যারা স্টেন্ট তৈরি করেন বা আমদানি করেন, সকলকেই এনপিপিএ নিয়ন্ত্রিত দামেই স্টেন্ট বিক্রি করতে হবে।

স্বাস্থ্য নিয়ে যে সব সংগঠন কাজ করে, তারা দাম কমানোর সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানিয়েছে। তবে তাদের অভিযোগ, ওষুধ সংস্থাগুলিকে বেশ কিছুটা মুনাফার সুযোগ করে দিতেই, গত জুলাই মাসে  গুরুত্বপূর্ণ ওষুধের তালিকায় স্টেন্টকে ঢোকানো সত্ত্বেও দাম কমাতে এতটা সময় নষ্ট করা হল।

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here