এলপিজি ও কেরোসিনের দাম কমবে? ওএনজিসি-কে ভর্তুকি ভাগের প্রস্তাব পাঠাল কেন্দ্র

0
LPG cylinder price

নয়াদিল্লি: ডিজেল-পেট্রোলের মতো জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধি রেকর্ড গড়ে ফেলেছে গত তিন বছরের তুলনায়। গত বছরের শেষ প্রান্তে এলপিজি এবং জ্বালানি তেলের দাম বাড়ানোর নিয়মিত পদ্ধতি গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েও পিছিয়ে আসতে বাধ্য হয় কেন্দ্র। ওই সিদ্ধান্তে বলা হয়েছিল, প্রতিটি এলপিজি সরবরাহকারী সংস্থা প্রতি মাসে সিলিন্ডার প্রতি চার টাকা দর বাড়াতে পারবে। গ্রাহক সংগঠনের আন্দোলনের জেরে ভর্তুকির পরিমাণ বাড়িয়ে পরিস্থিতি সামাল দেওয়া গেলেও ভবিষ্যতের কথা ঝেড়ে ফেলতে পারছেন না প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। স্বাভাবিক ভাবেই অবস্থা আয়ত্তে নিয়ে আসতে দেশের বৃহত্তম তেল ও গ্যাস সরবরাহকারী সংস্থাগুলির কাছে আবেদন পাঠানো শুরু করেছে কেন্দ্র।

আগেই শোনা গিয়েছিল, অয়েল অ্যান্ড ন্যাচারাল গ্যাস কর্পোরেশন, অয়েল ইন্ডিয়া লিমিটেড এবং গ্যাস অথরিটি অব ইন্ডিয়া লিমিটেডের কাছে ভর্তুকিতে অংশ নেওয়ার ব্যাপারে প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। বলা হয়েছিল, ভর্তুকি-মূল্যের এক তৃতীয়াংশ বহন করুন সংস্থাগুলি। এ বার সমস্যা প্রকট হতে থাকায় সরাসরি সরকারের তরফে ওএনজিসি-কে লভ্যাংশ কমিয়ে ফেলার প্রস্তাব পাঠিয়েছে বলে সূত্রের খবর।

তবে সংস্থাগুলি ঠিক কোন অঙ্কে ভর্তুকি ভাগে অংশ নেবে, তা এখনও নির্ধারিত হয়নি বলেই জানা গিয়েছে। কারণ দেশীয় জ্বালানি আমদানিকারক সংস্থাগুলির অবস্থা মোটের উপর ভালো নয়। সেই জায়গায় দাঁড়িয়ে সরকারের প্রস্তাব মেনে নিতে তার কোন পথে অগ্রসর হবে, সে বিষয়ে বিশদ চিন্তাভাবনার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করছে তারা।

বিজ্ঞাপন

উল্লেখ্য, বর্তমানে কলকাতায় ২৬৭.৫৭ টাকা, দিল্লিতে ২৪৮.৫৭ টাকা, মুম্বইয়ে ২২৫.৬২ টাকা এবং চেন্নাইয়ে ২৭১.৩১ টাকা প্রতি সিলিন্ডারে ভর্তুকি পেয়ে থাকেন গ্রাহকরা। এই ভর্তুকির অঙ্কে জড়িত রয়েছে সংশ্লিষ্ট রাজ্য সরকারগুলির রাজস্বের ওঠা-নামা। অধিকাংশ গ্রাহক সংগঠনের দাবি, সরকার দাম কমাতে না পারলেও অন্তত বাড়ানোর সিদ্ধান্ত যেন না নেয়। কেন্দ্রও আপাতত সে বিষয়টিকেই সামনে রেখে এগোতে চাইছে।

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here