মেডিক্যাল কমিশন বিলের বিরোধিতা, মঙ্গলবার বন্ধ থাকবে সব হাসপাতালের আউটডোর পরিষেবা

0
doctor

নিজস্ব সংবাদদাতা: মঙ্গলবার দেশ জুড়ে বন্ধ থাকবে হাসপাতালের আউটডোরের চিকিৎসা পরিষেবা। ১২ ঘন্টার জন্য চিকিৎসকরা এই প্রতিবাদ কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন। ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন-এর পক্ষ থেকে দেওয়া হয়েছে কালো দিবসের ডাক। উপলক্ষ্য- জাতীয় মেডিক্যাল কমিশন বিলের বিরোধিতা। কর্মসূচিকে সমর্থন জানিয়েছে ওয়েস্ট বেঙ্গল ডক্টরস ফোরাম-ও। ধর্মঘটের ফলে শহরের ৫টি মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মঙ্গলবার আউটডোর পরিষেবা বন্ধ থাকবে। ফলে রোগীদের চরম হয়রানির সম্ভাবনাটি উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না।

ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন-এর রাজ্যের সাধারণ সম্পাদক শান্তনু সেনের অভিযোগ, “কেন্দ্রীয় সরকার অন্যায়ভাবে মেডিক্যাল কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়াকে ভেঙে দিচ্ছে। ন্যাশনাল মেডিক্যাল কাউন্সিল তৈরি করে কেন্দ্রীয় সরকার চিকিৎসাশাস্ত্র শিক্ষার রাজনীতিকরণ করছে। গেরুয়াকরণ করছে। কুক্ষিগত করতে চাইছে সব কিছুই।

আরও পড়ুন: আর ক’টা দিন, তারপরই অ্যালোপ্যাথি ওষুধ লিখতে পারবেন হোমিওপ্যাথি চিকিৎসকরা?

বিজ্ঞাপন

একটি ব্রিজ কোর্স করেই হোমিওপ্যাথি ও আয়ুর্বেদ চিকিৎসকরাও অ্যালোপ্যাথির চিকিৎসা করতে পারবেন। এই মর্মে লোকসভায় শুক্রবার পেশ করা হয়েছিল ‘দ্য ন্যাশনাল মেডিক্যাল কমিশন বিল, ২০১৭’। এই বিলের হাত ধরে চিকিৎসাবিষয়ক পঠনপাঠন নিয়ন্ত্রণকারী ‘মেডিক্যাল কাউন্সিল অব ইন্ডিয়া’-র জায়গায় একটি নতুন সংস্থা তৈরির পথে হাঁটছে কেন্দ্র। কিন্তু এই বিলের বিরোধিতা করছে ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন।

শান্তনুর মতে, এর ফলে গরিব মানুষের আওতার বাইরে চলে যাবে মেডিক্যাল শিক্ষা।  তিনি বলেন, “এই পদ্ধতির মাধ্যমে একটি পিছিয়ে পড়া মানুষের বাড়ির লোক আর ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন দেখতে পারবে না। ব্যাঙের ছাতার মতো গজিয়ে উঠবে মেডিক্যাল কলেজ। সেই মেডিক্যাল কলেজগুলিতে দুর্নীতি বাড়বে। তাই সারা ভারতজুড়ে এই মেডিকেল বিলের বিরোধিতা করছেন চিকিৎসকরা। যে কোনো মূল্যে ন্যাশনাল মেডিকেল কমিশন বিলের বিরোধিতা করব আমরা।”

কিন্তু এই ধর্মঘটের ফলে রোগীরা অসুবিধায় পড়বেন না?

শান্তনু বলেন, “ধর্মঘটে হাসপাতালের কোনো জরুরি পরিষেবা বন্ধ থাকবে না।  এমারজেন্সি পরিষেবাও পুরোপুরি সচল থাকবে। শুধু বর্হিবিভাগগুলি বন্ধ থাকবে। কিন্তু কোনও OPD বন্ধ থাকবে না। যে রোগীর জরুরি অবস্থায় পরিষেবা দরকার, তাঁকে মঙ্গলবার পরিষেবা দেওয়া হবে। কিন্তু যে রোগীর পরিষেবা মঙ্গলবার না দিয়ে পরে দিলেও হবে, সেই ক্ষেত্রে আমরা তা পরেই দেবো”।

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here