জয়ললিতার মৃত্যু সন্দেহজনক, শশিকলার ভূমিকার তদন্ত দাবি

0
82

চেন্নাই: ভিকে শশিকলাকে তামিলনাড়ুর মুখ্যমন্ত্রীর আসনে বসানোর সিদ্ধান্তর পরেই রাজ্য জুড়ে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। বিদ্রোহের খবর পাওয়া যাচ্ছে এআইএডিএমকের ভেতর থেকেও। সেই ক্ষোভের আগুনে এ বার ঘি ঢাললেন প্রবীণ এআইএডিএমকে নেতা তথা তামিলনাড়ু বিধানসভার প্রাক্তন স্পিকার পিএইচ পান্ডিয়ান। জয়ললিতাকে খুন করা হয়েছে বলে দাবি করে বসলেন তিনি। মৃত্যুর পেছনে শশিকলার হাত রয়েছে কি না তা জানার জন্য নিরপেক্ষ তদন্তের দাবি করলেন তিনি।

সাংবাদিকদের পান্ডিয়ান বলেন,

PH-Pandian“আমি শুনেছি, হাসপাতালে নিয়ে আসার সময় জয়ললিতাকে ধাক্কা মারা হয়েছিল। তাঁর শারীরিক অবস্থা ভালো ছিল না। এই পরিপ্রেক্ষিতে শশিকলার আচরণের তদন্ত করা হোক।”

 

তাঁকে বিষ দেওয়া হয়ে থাকতে পারে এই সন্দেহ প্রকাশ করেছিলেন জয়ললিতা। এমন দাবি করে পান্ডিয়ান এ দিন বলেন, “আমরা ওঁকে আশ্বস্ত করেছিলাম, আমরা থাকতে কোনো দিন তাঁর কোনো ক্ষতি হতে দেব না।”

শশিকলাকে প্রথমে দলের সাধারণ সম্পাদক এবং পরবর্তীকালে মুখ্যমন্ত্রী করার সিদ্ধান্তের তীব্র বিরোধিতা করেছেন পিএইচ পান্ডিয়ান এবং তাঁর ছেলে মনোজ। দলের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে শশিকলা উন্নীত হওয়ার দু’দিন পর বর্ষীয়ান নেতা বলেছিলেন, “দলের সর্বেসর্বা বা মুখ্যমন্ত্রী কোনোটাই হওয়ার যোগ্যতা শশিকলার নেই।” যে ভাবে শশীকলাকে সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত করা হয়েছে সেটাও দলের গঠনতন্ত্র-বিরোধী বলে দাবি করেন তিনি। কয়েক বছর বহিষ্কৃত থাকার পর ২০১১-তে শশিকলাকে দলে ফিরিয়ে নেন জয়ললিতা। কিন্তু তাঁকে কখনোই সক্রিয় রাজনীতিতে আনবেন না বলে তাঁকে জানিয়েছিলেন জয়ললিতা, এমনই দাবি করেন বর্ষীয়ান ওই নেতার ছেলে মনোজ।

অবশ্য বর্ষীয়ান এই এআইএডিএমকে নেতার সমস্ত অভিযোগ খণ্ডন করেছে এআইএডিএমকে। যাঁরা গুজব রটাচ্ছে তাঁদের পাত্তা দেওয়ার কোনো দরকার নেই, বলে জানিয়েছে তাঁরা। দলের মুখপাত্র সিআর সরস্বতী জানিয়েছেন,

cr-saraswathi“এআইএডিএমকে সব নিয়ম মেনে করেছে। আমরা এখন শুধুমাত্র মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে ভিকে শশিকলার শপথের অপেক্ষায় রয়েছি।”

 

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here