কেন্দ্রের রিপোর্টই বলছে ক্ষুদ্র, ছোটো ও মাঝারি শিল্পোদ্যোগে শীর্ষস্থানে বাংলা

0
MSME KOLKATA

কলকাতা: চতুর্থ বাংলা বিশ্ব বাণিজ্য সম্মেলন মঞ্চে উপস্থাপিত কেন্দ্রীয় সরকারের একটি রিপোর্ট থেকে স্পষ্ট হয়ে গেল ক্ষুদ্র, ছোটো ও মাঝারি শিল্পোদ্যোগের দিক থেকে দেশে শীর্ষ স্থানে রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ। এ তথ্য জানিয়েছে খোদ কেন্দ্রীয় সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রক।

মন্ত্রকের প্রকাশিত গত ২০১৬-১৭-র রিপোর্টে স্পষ্ট ভাবেই স্বীকার করা হয়েছে, এই মুহূর্তে সারা দেশের মধ্যে পয়লা নম্বরে রয়েছে বাংলার নাম। এ রাজ্যে মোট ৫২,৬৯,৮১৪টি ইউনিট বর্তমান রয়েছে। যা সমগ্র দেশের মোট ইউনিট সংখ্যার ১১.৬২ শতাংশ। মন্ত্রকের এক আধিকারিক নির্দ্বিধায় স্বীকার করে নিয়েছেন, বাংলা খুব সহজেই মহারাষ্ট্র এবং গুজরাতকে পিছনে ফেলে দিয়েছে। ওই আধিকারিকের মন্তব্য, এই পরিসংখ্যান দেখেই বোঝা যায়, কোন রাজ্য ভবিষ্যতে বড়ো শিল্পের ঠিকানা হয়ে উঠতে কতটা নির্ভরযোগ্য হয়ে উঠছে।কারণ ওই সব ক্ষুদ্র, ছোটো ও মাঝারি শিল্পোদ্যোগ থেকেই বড়ো কোনো শিল্পের আত্মপ্রকাশ ঘটে যেতেই পারে যে কোনো সময়। কারণ এ ধরনের নজিরও রয়েছে অনেক। এমএসএমই-র সেক্রেটারি রাজীব সিনহা জানিয়েছেন, বাংলার পর দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে উত্তরপ্রদেশ।তৃতীয় স্থানে মহারাষ্ট্র এবং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর রাজ্য গুজরাত রয়েছে অষ্টম স্থানে।

অন্য একটি রিপোর্টে জানা গিয়েছে, ক্ষুদ্র, ছোটো ও মাঝারি শিল্পোদ্যোগের জন্য বরাদ্দকৃত ব্যাঙ্ক ঋণ গ্রহণের দিক থেকেও পশ্চিমবঙ্গে গত পাঁচ বছরে রেকর্ড সৃষ্টি করেছে। প্রায় ১৫০০ কোটি টাকা ঋণ দিয়েছে ব্যাঙ্কগুলি। কেন্দ্রের দেওয়া তথ্য বলছে ক্ষুদ্র, ছোটো ও মাঝারি শিল্পোদ্যোগ দেশের জিডিপি-তে প্রায় ৬ শতাংশ বৃদ্ধি ঘটিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

গত পাঁচ-ছয় বছর ধরে রাজ্য সরকার বেকারত্ব ঘোচাতে স্বনির্ভর হয়ে ওঠার বিকল্প পথ হিসাবে যে ভাবে ক্ষুদ্র, ছোটো ও মাঝারি শিল্পস্থাপনে গুরুত্ব দিয়ে্ এসেছে, এই সাফল্য তারই ইতিবাচক ফল বলে ধারণা করা হচ্ছে

– নিজস্ব চিত্র

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here