এপ্রিল থেকে বিমুদ্রাকরণের ইতিবাচক ফল মিলবে, বললেন অর্থসচিব

0
109

নয়াদিল্লি: বিমুদ্রাকরণের ইতিবাচক প্রভাব বোঝা যাবে এপ্রিল থেকে। এই ভবিষ্যদ্বাণী কেন্দ্রীয় অর্থসচিব শক্তিকান্ত দাসের। তিনি বলেন, পুনর্মুদ্রাকরণের কাজ সম্পূর্ণ হয়ে গেলে মানুষের ক্রয়ক্ষমতা বাড়বে।

বুধবার ওইসিডি-র ভারত সংক্রান্ত অর্থনৈতিক সমীক্ষা প্রকাশ করতে গিয়ে অর্থসচিব বলেন, পণ্য ও পরিষেবা করের বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কেন্দ্র ও রাজ্যগুলির মধ্যে যে বিরোধ আছে তা অনেকটাই মিটে এসেছে এবং ১ জুলাই থেকে পরোক্ষ করে সংস্কার চালু হয়ে যাবে। শক্তিবাবু বলেন, বিমুদ্রাকরণের প্রভাব মূলত পড়েছে মানুষের ক্রয়ক্ষমতার ওপরে এবং এই প্রভাব অস্থায়ী। আগামী ত্রৈমাসিকগুলি থেকে মধ্য মেয়াদে এবং দীর্ঘ মেয়াদে এর পরিণাম খুব খুব ভালো হবে।

অর্থসচিব আরও বলেন, “পুনর্মুদ্রাকরণের কাজ প্রায় শেষ হয়ে এসেছে। চলতি ত্রৈমাসিকের ওপর বিমুদ্রাকরণের কোনো ক্ষতিকর প্রভাবের রেশ আগামী অর্থবর্ষে থাকবে না। সেই সময় আমরা পেরিয়ে এসেছি।”

ওইসিডি-র ভারত সংক্রান্ত অর্থনৈতিক সমীক্ষায় বলা হয়েছে, চলতি বছরে বিমুদ্রাকরণের দরুন ভারতে অর্থনৈতিক বৃদ্ধির হার হবে ৭.৪ শতাংশের জায়গায় ৭.১ শতাংশ। সমীক্ষার পূর্বাভাস, ২০১৭-১৮-য় এই হার দাঁড়াবে ৭.৩ শতাংশ, ২০১৮-১৯-এ ৭.৭ শতাংশ।

অর্থসচিব বলেন, জিএসটি-র ফলে অর্থনৈতিক বৃদ্ধিতে বান ডাকবে। প্রভাবটা বোঝা যাবে। একবার ভারত এক বাজার হয়ে গেলেই, বৃদ্ধির ওপর জিএসটি-র ইতিবাচক প্রভাব অনুভূত হবে।  

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here