টেস্টের রাজসিংহাসন পুনরুদ্ধারের বিরাট সুযোগ বিরাটের কাছে

0
96

ঐতিহাসিক সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে ভারতীয় ক্রিকেট। এক দিকে হাতছানি দিচ্ছে ভারতের পাঁচশোতম টেস্ট, অন্যদিকে ঘরের একটা মরশুমে মাঠে সর্বাধিক টেস্ট খেলার সুযোগ। নিউজিল্যান্ড দিয়ে শুরু, এরপর আসবে ইংল্যান্ড, তারপর অস্ট্রেলিয়া। মাঝে বাংলাদেশের বিরুদ্ধেও একটি টেস্ট খেলবে বিরাটরা।

নামে ইংল্যান্ড বা অস্ট্রেলিয়া অনেক বড়ো দল হলেও, বিরাটদের প্রকৃত চাপে ফেলতে পারে কেন উইলিয়ামসনের নিউজিল্যান্ড। কারণ তাঁদের হাতে রয়েছে তিনজন ভালো স্পিনার, মিচেল স্যান্টনার, ইশ সোধি আর মার্ক ক্রেগ। অন্যদিকে ব্যাট হাতেও নিঃশব্দে বিপ্লব ঘটিয়ে চলেছেন উইলিয়ামসন নিজে। বয়স সবে ২৬। এখনই সব টেস্ট-খেলিয়ে দেশের বিরুদ্ধে শতরান করে ফেলেছেন তিনি। স্পিনার এবং পেসার, সবার বিরুদ্ধেই সমান সাবলীল কেন। তারপর গত বছর টি ২০ বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচটায় ঘূর্ণি পিচে কিউয়ি স্পিনাররা ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের নাকানিচোবানি খাইয়ে ছেড়েছিল।

kanpurএই সব মাথায় রেখেই আর সম্ভবত ঘূর্ণি পিচ তৈরি হচ্ছে না কানপুরে। এমন পিচ হবে যেখানে বোলার, ব্যাটসম্যান উভয়ের কাছেই  ফুল ফোটানোর সুযোগ থাকছে। তবে আবহাওয়া কিছুটা বাধা সৃষ্টি করতে পারে। বর্ষা শেষ হওয়ার আগেই ক্রিকেট মরশুম শুরু হয়ে গেল ভারতে। খেলা চলাকালীন টুকটাক বৃষ্টি চলতেই থাকবে।

১৯৩২ সালে সিকে নাইড়ুর হাত ধরে ইংল্যান্ডের মাটিতে প্রথমবারের জন্য টেস্টের স্বাদ নেওয়া ভারত কানপুরে খেলতে নামছে তার পাঁচশোতম ম্যাচ। মাঝে কেটে গেছে চুরাশিটা বছর। এর মধ্যে উত্থানও যেমন হয়েছে, পতনও হয়েছে। যে দলের বিদেশে টেস্ট খেলতে গিয়ে গোহারান হেরে আসা অবধারিত ছিল, সেই দলই আমূল বদলে গেল একুশ শতকের গড়ায় এক বঙ্গসন্তানের নেতৃত্বে। তখনই টেস্টের বাঘা বাঘা দলও বুঝতে শুরু করল ভারত কী জিনিস। সৌরভের যোগ্য উত্তরসূরি হিসেবে দলের হাল ধরলেন মহেন্দ্র সিংহ ধোনি। ধোনির নেতৃত্বেই প্রথমবার টেস্টে এক নম্বর দল হওয়ার কৃতিত্ব অর্জন করে ভারত। অবশ্য এর পরই ফের পতন শুরু। বিদেশে টেস্ট জেতা কাকে বলে তা আবার ভুলতে বসেছিল ভারত। এক নম্বর থেকে সাত নম্বরে নেমে যেতে হয়েছিল তাদের। ধোনির পর টেস্ট দলের হাল ধরলেন বিরাট কোহলি এবং সঙ্গে সঙ্গে সাফল্য। শ্রীলঙ্কাকে শ্রীলঙ্কায়, ওয়েস্ট ইন্ডিজকে তাদের দেশে হারানোই শুধু নয়, ঘরের মাঠে এক নম্বর দল দক্ষিণ আফ্রিকারও কালঘাম ছুটিয়েছেন কোহলি। এবার বিরাটের কাছে এসেছে বিরাট এক সুযোগ। প্রথমে নিউজিল্যান্ড, তারপর ইংল্যান্ড এবং অবশেষে অস্ট্রেলিয়া। বিদেশি তিনটি দলকে দুরমুশ করে টেস্টের রাজসিংহাসন পুনরুদ্ধার করতে পারবেন তো তিনি?  

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here