টাকা নয়, কলকাতার হয়ে নিজের সেরাটা দেওয়াই লক্ষ্য বোল্টের

0
72

ক্রাইস্টচার্চ: দশম আইপিএলের নিলামে তৃতীয় সর্বোচ্চ দামী ক্রিকেটার হয়েছেন তিনি। কিন্তু টাকা নিয়ে আদৌ ভাবিত নন কিউয়ি পেসার ট্রেন্ট বোল্ট। বরং কলকাতার হয়ে নিজের সেরাটা উজাড় করে দেওয়াই তাঁর লক্ষ্য।

তাঁর নিজের দর যে এতটা উঠতে পারে সেটাই ভেবে পাচ্ছেন না বোল্ট। সাংবাদিকদের দেওয়া সাক্ষাৎকারে বোল্ট বলেছেন, “টুইটারে আইপিএল নিলামের ওপর নজর রাখছিলাম। আমার দর যে ভাবে বেড়ে গেল, সেটাই ভেবে পাচ্ছি না। সব থেকে অবাক করা ব্যাপার মাত্র ছ’সাত সপ্তাহের জন্য কোনো ক্রিকেটারের ভাগ্যে এত টাকা জুটতে পারে।”

টেস্ট বোলার হিসেবে শুরু থেকে নজর কাড়লেও, এক দিনের ক্রিকেটে সে ভাবে সাফল্য আসছিল না। কিন্তু তাঁর ভাগ্য পালটে যায় ২০১৫ বিশ্বকাপ থেকে। বিশ্বকাপে ২২টি উইকেট নিয়ে মিচেল স্টার্কের সঙ্গে যৌথভাবে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি ছিলেন তিনি। তখন থেকেই ক্রিকেট মহলে ‘ক্রিকেটের থান্ডারবোল্ট’ হিসেবে খ্যাত হন বোল্ট।

গত বছর সানরাইজার্স হায়দরাবাদে থাকলেও বাংলাদেশের বোলার মুস্তাফিজুর রহমনের আড়ালেই থাকতে হয়েছিল তাঁকে। ষোলো ম্যাচের মধ্যে মাত্র একটিতে সুযোগ পেয়েছিলেন তিনি। গত বছরের অভিজ্ঞতা যে আদৌ সুখকর ছিল না সেটা স্বীকার করে নিয়েছেন বোল্ট। তাঁর কথায়, “ব্যাপারটা খুব হতাশাজনক ছিল। কিন্তু টুর্নামেন্টের নিয়মে তো মাত্র চারজন বিদেশিই খেলতে পারতেন। কাউকে না কাউকে তো বাইরে বসতেই হত।”সেই অভিজ্ঞতাকে পেছনে ফেলে নতুন ভাবে তৈরি হচ্ছেন বোল্ট। তিনি বলেছেন, টাকাটা তাঁর কাছে আদৌ গুরুত্বপূর্ণ নয়। তাঁর কাছে গুরুত্বপূর্ণ তাঁর দলের হয়ে নিজের সেরাটা দেওয়া, সেই সঙ্গে বিশ্বের তাবড় তাবড় ক্রিকেটারের সঙ্গে অভিজ্ঞতা ভাগ করে নিয়ে নিজের খেলাকে আরও উন্নত করা।

“এই মঞ্চটা খুব বড়ো। নিজের খেলার মান আরও উন্নত হবে। কলকাতার জন্য নিজের সেরা দেওয়ার চেষ্টা করব,” জানিয়েছেন বোল্ট। টেস্ট এবং এক দিনের ক্রিকেটের পাশাপাশি টি ২০ ক্রিকেটে বোল্টের রেকর্ড ঈর্ষা করার মতো। ১৪টি ম্যাচে মাত্র ২০-এর গড়ে ২০টি উইকেট নিয়েছেন তিনি। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে কয়েক দিন আগে হওয়া টি ২০ ম্যাচে চার ওভার বল করে মাত্র আট রান দিয়েছিলেন তিনি। নিয়েছিলেন দু’ উইকেট।

ইডেন গার্ডেন্সের উইকেটের চরিত্র এখন বদলেছে। ঘূর্ণি পিচ সরিয়ে জায়গা করে নিয়েছে গতিসম্পন্ন পিচ। তাই বোল্টের ওপরই বাজি ধরবেন কেকেআরের সমর্থককুল।

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here