শিক্ষামন্ত্রী ‘বেতন’ তুলে খোঁটা দেওয়ায় অস্বস্তি বোধ করছেন শিক্ষকদের একাংশ

0
school student

কলকাতা: রাজ্যের শিক্ষকরা যথাযথ দায়িত্ব পালন করছেন কিনা, তা বিলক্ষণ জানবেন শিক্ষামন্ত্রী। ফলে তিনি তাঁর দফতরের কাজে গতি নিয়ে আসতে নতুন পরিকল্পনা গ্রহণ করতেই পারেন। কিন্তু শিক্ষকদের বেতন দিতে রাজ্য সরকার কত টাকা খরচ করছে, সেই তথ্য তুলে ধরে তিনি যদি শিক্ষকদের দায়িত্ব পালনে আরও বেশি মনযোগী হওয়ার নির্দেশ দেন তা হলে তা মোটেই স্বস্তির কারণ হতে পারে না বলে মনে করছেন শিক্ষকদের একাংশ।

সম্প্রতি হিন্দু স্কুলের দ্বিশত বার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়েছিলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তিনি তাঁর বক্তব্যে শিক্ষকদের দায়িত্ব সচেতনতা নিয়ে দু’চার কথা বলেন। সেই প্রসঙ্গ টেনেই তিনি মন্তব্য করেন, সরকারি সহায়তা প্রাপ্ত স্কুলগুলির জন্য রাজ্য ১৭,০০০ কোটি টাকা খরচ করছে। এই টাকা ব্যয় হচ্ছে শিক্ষকদের বেতন দিতে। ফলে তাঁদেরও আরও বেশি দায়িত্বশীল হতে হবে। সরকার পরিচালিত বিদ্যালয়গুলির যাতে মানোন্নয়ন হয়, সে দিকে নজর দিতে হবে। সব মিলিয়ে আরও সচেতন হওয়ার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে নিজেদের কর্তব্য সম্পর্কে।

শিক্ষামন্ত্রী এমন কথাও বলেন, একটা শ্রেণী চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে শিক্ষক সমাজের দুর্নাম করতে। তারা বিদ্যালয়ের সুনাম নষ্ট করতে উঠেপড়ে নেমেছে। এ রকমটা চলতে দেওয়া যাবে না।

বিজ্ঞাপন

তবে শিক্ষকদেরই একাংশ শিক্ষামন্ত্রীর এহেন মন্তব্যে কোনো অপমানজনক ইঙ্গিতের আভাস না পেলেও অন্য একটি অংশের দাবি, এখনও পর্যন্ত শিক্ষকদের নানান অসুবিধার মধ্যে কাজ করতে হয়। পঠনপাঠনের কাজ ছাড়াও অধিকাংশ করণিক-হীন বিদ্যালয়ের যাবতীয় কাজ সামলাতে হয় শিক্ষকদেরই। ফলে বিদ্যালয়ের মানোন্নয়নগত দায়িত্ব পালনে তাঁদের খামতি রয়েছে, এমন একটা বার্তা না দেওয়াই ভালো বলে মনে করেন ওই অংশের শিক্ষকরা।

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here