মেয়ের নার্সিংহোমের বিলের টাকা জোগাড়ে ব্যর্থ হয়ে আত্মঘাতী বাবা

0
78

নিজস্ব প্রতিনিধি, বর্ধমান:  বেসরকারি হাসপাতালের নানারকম দুর্নীতির বিরুদ্ধে কয়েকদিন আগেই খোলাখুলি জেহাদ ঘোষণা করেছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। হাসপাতালের কর্তাদের রীতিমত ধমকে দিয়েছেন টাউন হলের বৈঠকে। তারপরও নামি হাসপাতালগুলির বিরুদ্ধে রকমারি অভিযোগ সংবাদ শিরোনামে আসছে রোজই। শাসক দলের নেতারাও নেমে পড়েছেন ময়দানে। তবে বড়ো ব্র্যান্ডের হাসপাতালের গণ্ডি ছাড়িয়ে রাজ্যের স্বাস্থ্যের সংকট যে অনেকদূর ছড়ানো সেই সত্যটা সামনে এল আরও একবার। এবার অভিযোগ, বর্ধমানের নবাবহাটের পি জি নার্সিংহোমের বিরুদ্ধে।

নার্সিংহোমে মেয়েকে ভর্তির পর বিলের টাকা জোগাড় করতে না পেরে শুক্রবার আত্মঘাতী হলেন বাবা। নাম তপন লেট। প্রতিবেশীদের দাবি, বিলের টাকা না মেটালে, মেয়েকে হোমে চালান করে দেওয়ার হুমকিও দেয় নার্সিংহোম কর্তৃপক্ষ।

dead person tapan let

গতকালের এই ঘটনায় নার্সিংহোমের তিন অংশীদার এবং এক কর্মীকে আজ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে পুলিশ। ধৃতদের নাম জয়লাল সেখ, মুন্সি মহম্মদ হসিমুল কবির, আব্দুল খতিফ এবং সৌভিক সাঁতরা।    

মৃত তপন লেটের বাড়ি ঝাড়খণ্ডের দুমকার মলুটি গ্রামে। ১৭ ফেব্রুয়ারি, তাঁর মেয়ে বীরভূমের রামপুরহাট হাসপাতালে সন্তান প্রসব করেন। শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে ১৯ ফেব্রুয়ারি প্রসূতিকে বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। জানা গেছে তপন লেটকে ভুল বুঝিয়ে তাঁর অসুস্থ মেয়েকে নবাবহাটের পিজি নার্সিংহোমে নিয়ে যায় অ্যাম্বুল্যান্স চালক। সেখানে প্রায় ৪২ হাজার টাকা বিল হয়। গ্রামে ফিরে বিলের টাকা জোগাড় করতে না পেরে, গলায় ফাঁস লাগিয়ে তপন লেট আত্মঘাতী হন বলে অভিযোগ।

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here