কমবেশি বৃষ্টি কিছুদিন, মহালয়ার পর আবহাওয়া ভালো হওয়ার ইঙ্গিত

0
110

বেশ কয়েকদিন শুকনো থাকার পর, দু’দিন হল ফের বৃষ্টি শুরু হয়েছে রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায়। পুজোর আগে এই বৃষ্টির ফলে এখন চিন্তার ভাঁজ পুজোউদ্যোক্তা থেকে পটুয়া, পুজোর বাজারের ক্রেতা থেকে বিক্রেতা সবার কপালে। এ বার কি বৃষ্টিতে ভাসবে পুজো?

না, পুজোয় বৃষ্টি হবে কি না পরিষ্কার এখনই বলা যাবে না। তবে আগামী তিন দিন গোটা রাজ্য জুড়ে কমবেশি বৃষ্টি হবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর। তবে দক্ষিণবঙ্গে ভারী বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা না থাকলেও, উত্তরবঙ্গের জন্য ভারী বৃষ্টি সতর্কবার্তা জারি করা হয়েছে।

এই মুহূর্তে উত্তর অন্ধ্রপ্রদেশ উপকূলে একটি নিম্নচাপ অবস্থান করছে। এই নিম্নচাপের প্রভাবে প্রচুর পরিমাণে জলীয় বাষ্প ঢুকছে দক্ষিণবঙ্গে। এর সঙ্গে যোগ হয়েছে দক্ষিণবঙ্গ ও বাংলাদেশ সংলগ্ন এলাকায় একটি ঘূর্ণাবর্ত। এই দ্বিফলা আক্রমণেই বৃষ্টি বেড়েছে গোটা রাজ্যে। গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে সব থেকে বেশি বৃষ্টি হয়েছে জলপাইগুড়ির মূর্তিতে (১০০ মিমি)। অন্যদিকে দক্ষিণবঙ্গে সব থেকে বেশি বৃষ্টি হয়েছে বাঁকুড়ায় (৩০ মিমি)। তবে পুজো-উৎসাহী মানুষের এখনই হতাশ হওয়ার কোনো কারণ নেই। বিভিন্ন বিদেশি আবহাওয়া সংস্থার পূর্বাভাসে যা ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে তাতে মহালয়ার পর থেকে গোটা রাজ্যেই কমে আসতে পারে বৃষ্টি। এ বার বর্ষার হিসেব বলছে ১ জুন থেকে ২২ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টি হয়েছে স্বাভাবিকের থেকে ২ শতাংশ বেশি, আর উত্তরবঙ্গে বৃষ্টির পরিমাণ স্বাভাবিকের থেকে ৩ শতাংশ কম।      

এ দিকে, প্রবল বৃষ্টিতে বানভাসি অন্ধ্রপ্রদেশ-তেলঙ্গানার বিভিন্ন এলাকা। বন্যায় এখনও পর্যন্ত ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। সব থেকে খারাপ অবস্থা অন্ধ্রের গুন্টুর জেলায়। আগামী তিন চার দিন আরও ভারী বৃষ্টি হবে এই দুই রাজ্যে। শুধু অন্ধ্র-তেলঙ্গানা নয়, জোর বৃষ্টি হচ্ছে গোটা মহারাষ্ট্রেও। মাত্রাতিরিক্ত বৃষ্টির কোপে পড়েছে মুম্বই-সহ সমগ্র কোঙ্কন উপকূল। তবে বর্ষা বিদায়ের আগে এই জোর বৃষ্টির ফলে সামনের শুখা মরশুমে জলকষ্টে ভুগতে হবে না এখানকার মানুষকে। 

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here