কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়কে ‘প্লেস অব আর্নিং’ বলে কটাক্ষ শিক্ষামন্ত্রীর

0
106

কলকাতা: কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়কে ‘প্লেস অব লার্নিং’ নয় ‘প্লেস অব আর্নিং’ বলে কটাক্ষ করলেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। রবিবার সল্টলেকের বিদ্যুৎ ভবনে আয়োজিত অল বেঙ্গল স্টেট গভর্নমেন্ট কলেজ টিচার্স অ্যাসোসিয়েশন-এর ৩৩ তম বার্ষিক সভায় এমন মন্তব্য শিক্ষামন্ত্রীর। এ ছাড়াও তিনি বলেন শিক্ষক সংগঠনগুলির নানা রকম দাবি করার অধিকার আছে, আন্দোলন করার অধিকার আছে। কিন্তু তার মানে এই নয় সরকারকে দিয়ে জোর করে কিছু দাবি আদায় করে নেওয়া যাবে। 

এ দিন তিনি বলেন শুধু পরিকাঠামো উন্নত হলেই হবে না। সামগ্রিক দিক থেকে উন্নত হতে হবে। তার মধ্যে রয়েছে শিক্ষকদের উপস্থিতি আর নিয়মানুবর্তিতার দিকটিও। তিনি কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের উদ্দেশে বলেন, হাজিরাটা তিনি শিক্ষকদের বিবেকের ওপর ছেড়ে দিয়েছেন। বলেন, সাধারণ মানুষের টাকায় সরকার শিক্ষকদের বেতন দেয়। তাই সরকারের সম্পূর্ণ অধিকার আছে শিক্ষকরা তাঁদের দায়িত্ব কর্তব্য কতটা পালন করছেন তা নজর রাখার। উপস্থিতির বিষয়ে বায়োমেট্রিক ব্যবস্থার ওপর জোর দিয়েছেন তিনি। 

এ দিন বিশ্ববিদ্যালয়গুলির শূন্যপদ পূরণের বিষয়ে জোর দেন। দ্রুত এই পদগুলি পূরণ না করতে পারলে সরকার তাতে হস্তক্ষেপ করবে বলে তিনি স্পষ্ট জানিয়ে দেন। পুনর্নিয়োগের বিষয়ে তিনি বলেন, একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রায় ৮০% পদই ভর্তি পুনর্নিয়োগের ফলে। কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য আশুতোষ ঘোষ শিক্ষামন্ত্রীর এই অভিযোগ মেনে নেন। তিনি বলেন, কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৯০%-এর ওপর পুনর্নিয়োগ হয়েছে।  

শিক্ষামন্ত্রী জানান, সরকার চাইলে এই নিয়োগ বাতিল করতে পারে। তিনি অশিক্ষক কর্মচারীদের বিষয়ে বলেন, গ্রুপ সি, গ্রুপ ডি নিয়োগ পদ্ধতি সংস্কার করা হবে। পাশাপাশি লাইব্রেরিয়ান নিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়ে অর্থ দফতরের সঙ্গে তিনি কথা বলবেন বলে জানিয়েছেন। 

 

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here