রণে ভঙ্গের ইঙ্গিত! ‘মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনায় রাজি’, দিল্লিতে বললেন মোর্চা নেতা বিমল গুরুং

0
gurung delhi

নয়াদিল্লি: শেষে কি রণে ভঙ্গই দিলেন বিমল গুরুং? গোর্খাদের সমস্যা মেটানোর জন্য মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে আলোচনায় রাজি বলে জানিয়ে দিলেন গুরুং।

দীর্ঘদিনের অজ্ঞাতবাস থেকে বেরিয়ে এসে বৃহস্পতিবার দিল্লিতে হাজির হন প্রাক্তন মোর্চা প্রধান বিমল গুরুং। সেখানে তিনি এএনআইকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেন, সমস্যা মেটানোর জন্য আলোচনাই একমাত্র পথ। তিনি বলেন, “রাজ্যের সঙ্গে আলোচনায় বসতে আমি প্রস্তুত। একমাত্র আলোচনাই পারে সব সমস্যা দূর করতে।”

অন্যবারের থেকে এ দিন তাঁর সুর অনেক নরম ছিল। তিনি যে বিচ্ছিন্নতাবাদী নন, সে কথাও বলে দেন গুরুং। তাঁর কথায়, “আমি বিচ্ছিন্নতাবাদী নই। আমি যা করেছি, সব সংবিধান মেনেই করছি।” তবে বৃহস্পতিবার গোর্খাল্যান্ডের কোনো প্রসঙ্গই মুখে আনেননি গুরুং, বরং তাঁর মুখে ছিল সামগ্রিক ভাবে গোর্খাদের প্রসঙ্গ। তাঁর কথায়, “বাংলার সঙ্গে কোনো বিরোধিতা নেই। তবে আমাদের সংস্কৃতি এবং ভাষা আলাদা। গোর্খাদের আলাদা সত্বার জন্যই আমি আন্দোলন করেছি।”

বিজ্ঞাপন

এই মুহূর্তে গুরুংয়ের বিরুদ্ধে সাড়ে তিনশো মামলা ঝুলে রয়েছে। ইউএপিএ ধারাতেও মামলা রয়েছে তাঁর বিরুদ্ধে। সেই কারণেই বহুদিন ধরে অজ্ঞাতবাসে রয়েছেন গুরুং। তাঁর এই অজ্ঞাতবাসকে কাজে লাগিয়ে হাত বদল হয়ে গিয়েছে মোর্চারও। মোর্চার প্রধান হয়েছে আলোচনাপন্থী নেতা বিনয় তামাং। বিনয়ের প্রতি সবরকম সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছে রাজ্যও। এইসবে ক্রমশ চাপ বাড়ছিল গুরুংয়ের উপরে।

রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের ধারণা, তাঁর ওপরে ঝুলে থাকা মামলা থেকে রেহাই পেতেই রণে ভঙ্গ দেওয়ার ইঙ্গিত দিলেন গুরুং।

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here