সংবাদ মাধ্যমের উপর হিন্দু সংহতি মঞ্চের ক্ষোভ আজকের নয়!

0
1370
hindu sanhati mancha

বিশেষ প্রতিনিধি: একাধিক সংবাদ মাধ্যমের সাংবাদিকদের উপর চড়াও হওয়ার পর হিন্দু সংহতি মঞ্চের বেশ কিছু আনকোরা তথ্য প্রকাশ্যে আসছে। বুধবার কলকাতার ধর্মতলায় প্রকাশ্য মঞ্চ থেকে খবর সংগ্রহে যাওয়া সাংবাদিকদের উপর আচমকা আক্রমণ করেন মঞ্চের কর্মী-সমর্থকরা। এই আক্রমণ কি নিছকই তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া। না কি কোনো সুদূর প্রসারী চিন্তাভাবনার গাঢ় অভিব্যক্তি?

জানা গিয়েছে, বেশ কয়েক দিন ধরেই হিন্দু সংহতি মঞ্চ নামক সংগঠনটি পশ্চিমবঙ্গে নিজেদের সাংগাঠনিক কার্যকলাপের বিস্তার ঘটাচ্ছে। সর্বশেষ পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, রাজ্যের ১২টির বেশি জেলায় এই সংগঠনটির স্থায়ী কার্যালয়ও রয়েছে। ওই সংগঠনের সূত্রপাত ২০০৮-এ। কিন্তু অতি দ্রুত সংগঠনের শ্রীবৃদ্ধি ঘটে। এর নেপথ্যে রয়েছে সংগঠনের প্রধান তপন ঘোষের সুকৌশল। একদা রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘের প্রচারক তপনবাবু অতি দক্ষ হাতে হিন্দু সংহতিকে পরিচালনা করছেন প্রায় এক দশক ধরে। প্রাথমিক ভাবে সংগঠনটিকে ধর্মীয় মোড়কে না ঢেকে ফেলে আম-আদমির কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য বেশ কিছু সর্বজনীন কর্মসূচি নেওয়া হয়েছিল। যেমন জায়গায় জায়গায় সভা করে যোগব্যয়াম, সূর্য নমস্কারের মতো প্রাত্যহিক অনুশীলনকে হাতিয়ার করে ফেলে ওই সংগঠন। যার জেরে সাধারণ মানুষের কাছে অতি সহজে পৌঁছে যাওয়া যায়।

হিন্দু সংহতি মঞ্চ দীর্ঘদিন ধরেই সোশ্যাল মিডিয়াকে কৌশলে ব্যবহার করে আসছে। রাজ্যের কোথাও যে কোনো রকমের ধর্মীয় ছোঁয়া লাগা ঘটনা ঘটলেই এই মঞ্চ সোশ্যাল মিডিয়ায় সক্রিয় হয়ে ওঠে বলে টেক-স্যাভিদের মত। প্রযুক্তিকে কাজে লাগিয়ে কী ভাবে ধর্মীয় তথ্যকে খুব দ্রুত যত বেশি সংখ্যক মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়া যায়, সেই চেষ্টাই ওই সংগঠন করে থাকে বলে তাঁদের ধারণা।

তপনবাবু বা তাঁর সংগঠন বিশ্বাস করে, সোশ্যাল মিডিয়ার রাশ হাতে রাখাই এখনকার দিনে অনেক ভালো। গত ২৬ মে,২০১৭-তে হিন্দুস্থান টাইমস-এ প্রকাশিত একটি সংবাদে তিনি মন্তব্য করেছেন, ডোনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে সংবাদ মাধ্যম অনেক পক্ষপাতদুষ্ট খবর পরিবেশন করেছিল। যা ছিল অনৈতিক। কিন্তু আদতে তো তিনি জিতলেন।

ওয়াকিবহাল মহলের মতে, মুখে যে যাই বলুক, বিজেপি বা আরএসএসের মদত না থাকলে এই সংগঠন এত দ্রুত ছড়িয়ে পড়তে পারে না।

ছবি: তপন ঘোষের টুইটার সৌজন্যে

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here