পশ্চিমবঙ্গের সব গ্রন্থাগারে চালু হচ্ছে ইন্টারনেট সংযোগ

0
325

কলকাতা: এ বার রাজ্যের সমস্ত গ্রন্থাগারে ইন্টারনেট সংযোগ চালু করছে গ্রন্থাগার দফতর। গ্রন্থাগারে গিয়ে বইপড়ার পাশাপাশি ইন্টারনেটের মাধ্যমে সরকারি-বেসকারি চাকরির জন্য আবেদন করার সুযোগ পাবেন ছাত্রছাত্রীরা। আর এই পরিষেবা একেবারে বিনামূল্যে দেওয়া হবে। মূলত গ্রামবাংলার গ্রন্থাগারে এই ইন্টারনেট সংযোগ দেওয়ার কাজ শুরু হচ্ছে। প্রথম পর্যায়ে জেলার গ্রন্থাগারগুলিতে এই সংযোগ দেওয়া হবে। দ্বিতীয় পর্যায়ে শহরের গ্রন্থাগারগুলিতে ইন্টারনেট সংযোগ চালু হবে বলে গ্রন্থাগার দফতর সূত্রে জানা গিয়েছে।

জেলার ও শহরের গ্রন্থাগারগুলিতে বই পড়ার ঝোঁক ক্রমশ কমছে। আগে যে সংখ্যায় ছাত্রছাত্রীরা গ্রন্থাগারে বই পড়তে আসতেন তা এখন একেবারে অর্ধেক হয়ে গিয়েছে। এই বিষয়ে জেলার গ্রন্থাগারগুলি থেকে দফতরে একাধিক অভিযোগ আসছিল। এর পরই দফতরের পক্ষ থেকে একটি সমীক্ষা করা হয়। সেই সমীক্ষা করে শহরের একটি নামী সংস্থা। আর সমীক্ষা করতে এই সংস্থাটি জেলায় জেলায় গ্রন্থাগারগুলি পরির্দশন করে। সে সব গ্রন্থাগারের অবস্থা যাচাই করেন, তেমনই গ্রন্থাগারগুলিতে কী কী বই আছে সে সম্পর্কেও বিস্তারিত তথ্য যাচাই করে। এমনকি ছাত্রছাত্রীদের সঙ্গে কথা বলে এই সংস্থাটি। এর পরই একটি রিপোর্ট দেয় গ্রন্থাগার দফতরকে। তার পরই দফতরের পক্ষ থেকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

গ্রন্থাগার দফতরের এক যুগ্ম সচিব বলেন, “কোন কোন গ্রন্থাগারে প্রথম পর্যায়ে ইন্টারনেট সংযোগ দেওয়া হবে তার একটি তালিকা তৈরি করা হয়েছে। জেলা ও বিভিন্ন শহরে প্রধান সরকারি গ্রন্থাগারই আছে ১০ হাজারেরও বেশি।”

বিজ্ঞাপন

গ্রন্থাগারমন্ত্রী সিদ্দিকুল্লা চৌধুরি বলেন, “রাজ্যের গ্রন্থাগারগুলিকে আরও স্মার্ট করতেই এই উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। দফতরের পক্ষ থেকে একটি সমীক্ষা করা হয়। সেই সমীক্ষার রিপোর্ট হাতে পাই। তার পরই এই ইন্টারনেট সংযোগ চালু করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। মুখ্যমন্ত্রীর উদ্যোগেই এই পরিষেবা চালু হচ্ছে। আর গ্রন্থাগারগুলিতে এখন প্রতি বছরই প্রচুর নতুন বই কেনা হচ্ছে। কিন্তু এ বার গ্রন্থাগারগুলিতে একেবারে বিনামূল্যে ইন্টারনেট সংযোগ দিয়ে আরও আধুনিক করার প্রক্রিয়া শুরু হচ্ছে।”

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here