বিজেপির ‘তিন তালাক রাজনীতি’র নমুনা মিলেছে এ রাজ্যেই

0
700
Mamata Banerjee cm wet bengal

কলকাতা: তিন তালাক বিরোধী বিল নিয়ে উত্তাল সংসদের উচ্চ কক্ষ। লোকসভায় মসৃণ ভাবে বিলটি পেশ এবং পাশের কাজ সেরে ফেললেও রাজ্যসভায় বিরোধীদের প্রবল চাপের মুখে পড়তে হল বিজেপিকে। তবে সংসদের ঘেরাটোপ ডিঙিয়ে সেই বিতর্ক আছড়ে পড়েছে আ-সমুদ্র হিমাচল। এই প্রস্তাবিত বিল যে শুধু মাত্র কোনো একটি নির্দিষ্ট ধর্মীয় সম্প্রদায়ের কাছেই বিরোধিতার সম্মুখীন হচ্ছে তা নয়। জাতীয় রাজনীতির প্রশস্ত ক্ষেত্রে এই বিলের মহিমা ছড়িয়ে রয়েছে বহু অবয়বে।

আজ বীরভূমের আমোদপুরের সভায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, ‘সব কিছু নিয়েই রাজনীতি করছে বিজেপি। আমরা মেয়েদের কথা ভেবে তিন তালাক নিয়ে নরম অবস্থান নিয়েছিলাম। কিন্তু যে বিল নিয়ে এল তা ত্রুটিপূর্ণ। তিন তালাক বিরোধী বিল রাজনৈতিক কারণে এনেছে কেন্দ্র। ওই বিলে আরও বিপদে পড়বেন মহিলারা।’

মমতার কথা যে অমূলক নয়, তার প্রমাণ মিলেছে এ রাজ্যেই। বাংলার সামাজিক ক্ষেত্রটিকে সরিয়ে রাখলেও এই বিল নিয়ে বিজেপির রাজনীতি প্রকাশ্যে এসেছে কয়েক দিন আগেই। তিন তালাকের বিরোধিতা করে ইতিমধ্যেই প্রচারের কেন্দ্রবিন্দুতে উঠে আসা ইশরত জাহানকে নিয়ে বিজেপির রাজনীতি তারই জোরাল ইঙ্গিত দিয়েছে। হাওড়ার তরুণী ইশরাত বেশ কয়েকটি কারণে সমাজের নবীন প্রজন্মের কাছে শ্রদ্ধার আসনে ছিলেন। তাঁর স্বামী তাঁকে যে কৌশলে প্রত্যাখ্যান করেছিলেন, তা মোটেই কাম্য নয়। সেই অন্যায্য পদ্ধতির বিরুদ্ধে এক তরুণীর রুখে দাঁড়ানোর কাহিনি সত্য ঘটনা দৃষ্টান্ত স্থাপন করতেই পারে। কিন্তু তাঁর আচমকা বিজেপিতে যোগ দান, কোন বার্তা বহন করে, তা নিশ্চয় পশ্চিমবঙ্গের রাজনীতি সম্পর্কে ন্যূনতম খবর রাখা কাউকেই বুঝিয়ে বলতে হয় না।

সূত্রের খবর, সৌজন্যবশত বিজেপি তাঁকে সরকারি চাকরির আশ্বাস এবং তাঁর সন্তানের পড়াশোনার দায়িত্ব নিয়েছে। মানবিকতার খাতিরে বিজেপির এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানাতে হয়। কিন্তু ইশরাতকে রাজ্যের মুসলিম সম্প্রদায়ের কাছে বিজেপির মুখ হিসাবে তুলে ধরার পরিকল্পনাকে কী সমর্থন করবেন বাকিরা। এমনও শোনা গিয়েছে, উলুবেড়িয়া উপনির্বাচনে তাঁকে প্রার্থী করার প্রতিশ্রুতিও দেওয়া হয়েছে বিজেপির তরফে।

প্রশ্ন উঠছে এখান থেকেই। দেশে কি শুধুই ইশরাত তিন তালাকের শিকার হয়েছেন? না কি এ ধরনের কোনো বঞ্চিত নারীকে তাৎক্ষণিক কিছু সুযোগ পাইয়ে দিলেই সার্বিক ভাবে সমস্যার সমাধান সম্ভব? যদি তা না হতো তা হলে বিজেপি নয়, সরকারি উদ্যোগে ইশরাতকে সহযোগিতার কথা ভাবত কেন্দ্রীয় সরকার।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here