ওয়েবডেস্ক: পোশাকি নাম ‘হার্বিন ইন্টারন্যাশনাল আইস অ্যান্ড স্নো স্কাল্পচার ফেস্টিভ্যাল’। ১৯৬৩ সাল থেকে চিন দেশে হয়ে আসছে এমন উৎসব। মাঝে সাংস্কৃতিক বিপ্লবের সময় কিছু দিন ছেদ পড়েছিল তাতে। উত্তর-পূর্ব চিনের হার্বিন শহরে এই উৎসব শুরু হয় জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে। চলবে প্রায় মাস দেড়েক।

এ বছরের হার্বিন উৎসব ইতিমধ্যে জমে উঠেছে। বরফের তৈরি স্থাপত্য দেখতে দেশ-বিদেশ থেকে মানুষ ছুটছে হার্বিন শহরে। গেল মরশুমে ১ কোটি ৮ লক্ষ ছাড়িয়েছিল দর্শনার্থীর সংখ্যা।

হার্বিনের বরফ উৎসবে প্রদর্শিত সব তুষার-স্থাপত্য কিন্তু যেমনতেমন ভাবে তৈরি হয় না। এটি পুরোপুরি থিমের উৎসব। চিনা বিদেশনীতির সঙ্গে প্রাসঙ্গিকতা বজায় রেখে সেজে ওঠে বরফ-প্রদর্শনী।

সিল্ক রুট, মস্কোর রেড স্কোয়ার, ব্যাঙ্ককের বুদ্ধমন্দিরের আদলে এ বছর বানানো হয়েছে তুষার-স্থাপত্য। চিনা পর্যটনকে লাভের মুখ দেখাতেও হার্বিন উৎসব যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ।

২০১৭-র হার্বিন বরফ উৎসব থেকে চিনা পর্যটনের আয় হয়েছিল প্রায় ৬০০ কোটি মার্কিন ডলার।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here